বৃহস্পতিবার, জুন ২৪, ২০২১ : ২:২৯ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

চুরির চেকে টাকা তোলার চেষ্টা, অতপর…

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম : গোলাপগঞ্জে অন্যের অ্যাকাউন্ট থেকে চুরির চেকে টাকা উত্তোলন করতে গিয়ে কারাগারে গেলেন খোরশেদ আলম বাবলু নামের এক ব্যক্তি। তিনি সিলেট নগরীর সোবাহানীঘাটের ৩৫ নম্বর মৌবনের মৃত নিয়াজ আহমদের ছেলে। মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটায় পূবালী ব্যাংক গোলাপগঞ্জ শাখা থেকে তাকে হাতেনাতে আটক করা হয়। ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মালিক নগরীর চৌকিদেখী ১৬৩ নম্বর রংধনু বাসার বাসিন্দা। বুধবার দুপুরে গোলাপগঞ্জ থানা পুলিশ সিলেট জেলা জজ ও দায়রা জজ আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়্যাল ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতে বাবলুকে তোলেন। আদালত বাবলুকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ প্রদান করেন। গোলাপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা একেএম ফজলুল হক শিবলী জানান, গতকাল মঙ্গলবার মতিন আহমেদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বেআইনীভাবে টাকা উত্তোলনের অভিযোগটি পাই। পরে গোলাপগঞ্জ পূবালী ব্যাংক শাখা থেকে তাকে আটক করা হয়। বেআইনীভাবে টাকা উত্তোলনের অভিযোগটি পাই। পরে গোলাপগঞ্জ পূবালী ব্যাংক শাখা থেকে তাকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করেছেন অ্যাকাউন্টটির মালিক। ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মালিক মতিন আহমেদ জানান, তিনি একজন ব্যবসায়ী। চৌকিদেখীতে তার ভিসিডি-ডিভিডি ক্যাসেটের দোকান রয়েছে। তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামে গোলাপগঞ্জের পূবালী ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট রয়েছে। যার নম্বর ৩৫২১৯০১০০৬০৪০। এটি থেকে মঙ্গলবার চুরি হওয়া চেক বইয়ের একটি চেকের পাতা দিয়ে আশিকুর রহমান আশিক পরিচয় দিয়ে খোরশেদ আলম বাবলু ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা উত্তোলন করতে যান। চেকের পাতা নম্বর ৭৫৪৫১৩৯। এসময় ম্যানেজার বিষয়টি তাকে অবগত করেন। খবর পেয়ে তিনি ব্যাংকে ছুঁটে যান। ওখানে ব্যাংক ব্যবস্থাপক ও পুলিশের সহযোগিতায় খোরশেদ আলম বাবলুকে আটক করা হয়। এর আগে ১১ আগস্ট পূবালী ব্যাংক উপশহর শাখা থেকেও অনুরুপভাবে বাবলু ৮ হাজার টাকা উত্তোলন করেছেন। তার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open