সোমবার, জুন ১৪, ২০২১ : ৩:২৪ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

সিলেট-ভোলাগঞ্জ সড়ক যেন ক্ষেতের জমি : দীর্ঘ যানজট

বিপ্লব রায় :  সিলেট-কোম্পানীঞ্জ-ভোলাগঞ্জ সড়কে কোথাও বড় বড় গর্ত, আবার কোথাও অস্তিত্বই নেই রাস্তার। এর মধ্য দিয়েই চলছে দেশের সর্ববৃহৎ কোয়ারি ভোলাগঞ্জ থেকে সারাদেশে পাথর পরিবহন। কোম্পানীগঞ্জ এবং গোয়াইনঘাট ও সদরের একাংশের লোকজনেরও সিলেট নগরে আসার একমাত্র রাস্তা এটি। প্রায় এ বছরের প্রথম দিকে সড়কটি পরিদর্শনে এসে এর বেহালদশা দেখে এটিকে ক্যান্সার আক্রান্ত বলে মন্তব্য করেছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। দ্রুত সড়কটি মেরামতের জন্য সওজকে নির্দেশ দিয়েছিলেন ওবায়দুল কাদের। তার নির্দেশ উপেক্ষিতই থেকেছে। ছয় মাসেও কাজ শুরু করেনি সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

প্রায় তিন লক্ষাধিক মানুষের চলাচলের এই জনগুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক এ মহাসড়কটি মেরামতের জন্য স্থানীয় লোকজনও দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছেন। জনগণের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে গত এপ্রিল মাসে সড়কটি পূর্ণাঙ্গ আঞ্চলিক মহাসড়কে রূপান্তর করতে ৪৪১ কোটি টাকার একটি প্রকল্প একনেকের সভায় অনুমোদন দেয় মন্ত্রীসভা। কিন্তু এখন পর্যন্ত সড়কটির কাজই শুরু হয়নি।

বর্ষা মৌসুমে সড়কটির অবস্থা আরো করুণ হয়ে পড়েছে। ভাঙা সড়ক দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে যান চলাচল প্রতিদিনই দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহন। এতে রাস্তায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। কখনো কখনো এই যানজট ৩০-৪০ কিলোমিটারও দীর্ঘ হয়।

বেহাল রাস্তা ও যানজটের কারণে পেশাজীবী ও শিক্ষার্থীরা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তাদের গন্তব্যে পৌঁছতে পারছেন না। দুর্ঘটনার শিকার হয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। ঝুঁকিপূর্ণ রাস্তার জন্য যাত্রীরাও ৩-৪ গুণ ভাড়া গুণতে হচ্ছে।

গত ৭ এপ্রিল সড়কটি সংস্কারের জন্য ৪৪১ কোটি টাকার একটি প্রকল্প পাস হয়। এরপর এলাকার লোকজন দ্রুত কাজ শুরু হওয়ার আশা করছিলেন। কিন্তু ৩ মাসেও কাজ শুরু তো দূরের কথা এখনো দরপত্রই আহ্বান হয়নি।

তবে দরপত্র আহ্বানের প্রক্রিয়া চলছে জানিয়ে সড়ক ও জনপথ (সওজ) সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু এহতেশাম রাশেদ জানান, চলতি মাসেই দরপত্র আহ্বান করা হবে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে রাস্তাটির কাজ শুরুর চেষ্টা করা হবে।

সিলেট জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. দিলু মিয়া  বলেন, সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় প্রায় গর্তে পড়ে ট্রাক আটকে যায়। ৩-৪ দিন পর্যন্ত ট্রাক গর্তে পড়ে থাকে। এতে দীর্ঘ যানজটেরও সৃষ্টি হয়।

সিলেট জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কাহের ইজু  জানান, স্বল্প সময়ের মধ্যে সড়কটি ট্রাক চলাচলের উপযোগী করে না তুললে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দেয়া হবে।

এ ব্যাপারে সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ বলেন, সিলেট-ভোলাগঞ্জ সড়ক যান চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। জনদুর্ভোগ লাঘবে সরকার সড়কটি সংস্কারের জন্য ৪৪১ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open