বুধবার, ডিসেম্বর ৮, ২০২১ : ৪:৩৩ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

অবশেষে মুক্তির অনুমতি পেল রানা প্লাজা

সিলেটভিউজ বিনোদন ডেস্কঃ অপেক্ষার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে বহুল আলোচিত চলচ্চিত্র ‘রানা প্লাজা’। এর ফলে মুক্তির পথে আরো একধাপ এগিয়ে গেল ছবিটি।

এর বিভিন্ন দৃশ্য, রানা প্লাজা ধসের দৃশ্য প্রভৃতি নিয়ে আপত্তি তোলায় দীর্ঘদিন সেন্সর বোর্ডে আটকে ছিলো। এরপর সিনেমাটির সেন্সর ছাড়পত্র পাওয়ার বিষয়টি গড়ায় আদালত পর্যন্ত।

অবশেষে সকল জটিলতা কাটিয়ে সিনেমাটিকে ছাড়পত্র দিয়েছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড। গেল বৃহস্পতিবার ১১ জুন সিনেমাটি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে বলে সেন্সর বোর্ড সূত্রে জানা গেছে।

বহুল আলোচিত সিনেমা রানা প্লাজা সিনেমায় পোশাক শ্রমিক ‘রেশমা’র চরিত্রে অভিনয় করেছেন সময়ের আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনি। এটি তার চুক্তিবদ্ধ হওয়া প্রথম ছবি। ‌এখানে পরীমনির বিপরীতে অভিনয় করছেন সাইমন সাদিক। সাইমনের চরিত্রের নাম টিটু।

এছাড়াও ছবিটিতে অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত, মিজু আহমেদ, কাবিলা, হাবিব খান, শিরিন আলম প্রমুখ। এর কাহিনি-সংলাপ লিখেছেন মুজতবা সউদ। চিত্রগ্রহণে এ এইচ স্বপন। সংগীতায়োজন করছেন আলী ইকরাম শুভ। শিল্প নির্দেশনায় কলন্তর, ব্যবস্থাপনায় মান্নান।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে সাভারে রানা প্লাজা নামের একটি বহুতল ভবন ধসে পড়ে। এই ঘটনার ১৭ দিন পর ১০ মে ধ্বংসস্তূপ থেকে রেশমা নামের এক মেয়েকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নির্মাতা নজরুল ইসলাম খান তৈরি করেন রানা প্লাজা চলচ্চিত্রটি। ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে অনেক ঢাকঢোল পিটিয়ে সাভারের রানা প্লাজার ধ্বংসের কাহিনি নিয়ে সিনেমাটি নির্মাণ শুরু হয়।

দৃশ্যায়নের কাজ শেষ করে সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়ার পর এর কাহিনি ও বেশ কিছু দৃশ্য, পোশাক শিল্প খাতকে অশান্ত করে তুলতে পারে বলে অভিযোগ করেন সেন্সর বোর্ডের সদস্যরা।

তারা আপত্তি জানিয়ে বলেন, সিনেমাতে গার্মেন্টস ধসে পড়ার যে দৃশ্যটি দেখানো হয়েছে, তা রীতিমতো ভয়াবহ। এমন দৃশ্য সম্বলিত সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেলে তার ফলাফল হবে আরও ভয়াবহ। বাংলা সিনেমার বড় দর্শক হচ্ছে গার্মেন্টসকর্মীরা। রানা প্লাজা ধসের ঘটনাটি তাদের আরও উত্তেজিত করে তুলবে। পরিস্থিতি অস্থিতিশীল হয়ে উঠবে এতে।

এএম মাল্টি মিডিয়ার প্রথম প্রযোজিত এই চলচ্চিত্রের গল্পে দেখা যাবে, গ্রামের এক দরিদ্র পরিবারের মেয়ে রেশমাকে ভালোবাসে তার প্রতিবেশী টিটু। কিন্তু টিটু তাদের চেয়ে অবস্থাপন্ন বলে তার প্রস্তাবে সায় দেয় না রেশমা। টিটুও হাল ছাড়ার পাত্র নয়। এক দুর্ঘটনা থেকে টিটু রেশমাকে উদ্ধার করে।

এরপর টিটুকে পছন্দ করতে শুরু করেন রেশমা। সায় দেন তার প্রস্তাবে। এর কিছুদিন পর বিয়ে করে টিটু ও রেশমা। তারা ঢাকায় চলে আসেন। তখন এক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে কর্মক্ষমতা হারিয়ে ফেলে টিটু। পরিবারের দায়িত্ব মাথায় তুলে নিয়ে রেশমা যোগ দেয় এক গার্মেন্টসে। এ নিয়ে নানা জটিলতা তৈরি হয়। এক পর্যায়ে ঘটে রানা প্লাজার দুর্ঘটনা। সেখানে দূর্ঘটনার মুখে পড়ে রেশমা।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

আয়নাবাজি মুক্তি পাচ্ছে কানাডা-অস্ট্রেলিয়ায়

বিনোদন ডেস্ক ; অমিতাভ রেজা চৌধুরীর আলোচিত চলচ্চিত্র ‘আয়নাবাজি’ বাংলাদেশে মুক্তি পায় গেল ৩০ সেপ্টেম্বর। …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open