সোমবার, অক্টোবর ১৮, ২০২১ : ১:৪০ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

সিলেটে আসেননি আরিফ-বাবর, হাজিরা দিলেন গউছ-হান্নান

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম : সিলেট বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বহুল আলোচিত সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যা মামলার শুনানী শুরু হয়েছে। রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় শুনানীতে মামলার আসামী হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জি কে গউছ ও হরকাতুল জিহাদের শীর্ষ নেতা মুফতি আব্দুল হান্নানসহ ৪ জনকে আদালতে হাজির করা হয়। তবে, অসুস্থতার কারণে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র (সাময়িক বরখাস্তকৃত) আরিফুল হক চৌধুরীকে আনা হয়নি। এছাড়া অসুস্থতা ও অন্য একটি মামলায় হাজিরা থাকায় কিবরিয়া হত্যা মামলার আরেক আসামী সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরকেও সিলেট আদালতে আনা হয়নি। শুনানী শেষে আগামী ৬ জুলাই আদালত মামলার পরবর্তী তারিখ ধার্য্য করেন।

গত ১১ জুন হবিগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ মো. আতাবুল্লাহ সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যা মামলাটি দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে সিলেট বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে গত ২ জুন হবিগঞ্জ জেলার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম নিশাত সুলতানার আদালত থেকে মামলাটি হবিগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালতে পাঠানো হয়েছিল।

আলোচিত এই হত্যা মামলায় কারাগারে আটক রয়েছেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, সিলেট সিটি করপোরেশনের সদ্য বরখাস্তকৃত মেয়ল আরিফুল হক চৌধুরী, হবিগঞ্জ পৌরসভার সদ্য বরখাস্তকৃত মেয়র জি কে গউছ।

উল্লে¬খ্য, ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জের বৈদ্যের বাজারের জনসভায় গ্রেনেড হামলায় আওয়ামীলীগ নেতা ও সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়াসহ পাঁচজন নিহত হন। ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকারের সময় অর্থমন্ত্রী ছিলেন কিবরিয়া। গ্রেনেড হামলার এ ঘটনায় জেলা আওয়ামীলীগের তৎকালীন সাংগঠনিক সম্পাদক ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য আব্দুল মজিদ খান বাদী হয়ে হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দু’টি মামলা দায়ের করেন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে টিলাগড় রণক্ষেত্র

সিলেট নগরীর টিলাগড়ে ছাত্রলীগের বিবদমান দুটি গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে টিলাগড় পয়েন্ট এলাকা রণক্ষেত্রে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open