বৃহস্পতিবার, জুন ২৪, ২০২১ : ৪:০২ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

বাংলাদেশের যত সিরিজ জয়

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম : ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতে নিজেদের ১৮তম সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। তিন ম্যাচের চলতি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ভারতকে ৭৯ রানে হারানোর পর রোববার (২১ জুন) সফরকারীদের ছয় উইকেটের ব্যবধানে হারায় টাইগাররা। এর মধ্য দিয়ে মাশরাফিরা এক ম্যাচ হাতে রেখেই ওয়ানডে সিরিজ জিতে নেয়।

ওয়ানডে স্ট্যাটাস পাওয়ার পর বাংলাদেশ দল প্রথম দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলে ১৯৯৯ সালে। ঢাকায় পাকিস্তানের বিপক্ষে ওই ম্যাচে ১৫২ রানে হার মানে বাংলাদেশ। এর পর দেশ ও দেশের বাইরে জিম্বাবুয়ে, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ খেলে বাংলাদেশ। তবে সিরিজ জয়ের সুযোগ তখন তৈরি করতে পারেনি টাইগাররা।

বাংলাদেশের প্রথম সিরিজ জয় ২০০৫ সালের জানুয়ারিতে। সেবার পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ঢাকায় আসে জিম্বাবুয়ে। ওয়ানডে সিরিজ বাংলাদেশ জিতে নেয় ৩-২ ব্যবধানে। প্রথম চার ম্যাচ শেষে ২-২ সমতায় থাকে সিরিজ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শিরোপা নির্ধারণী শেষ ম্যাচে আট উইকেটে জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ জয় করে টাইগাররা।

২০০৬ সালে কেনিয়াকে ৪-০ তে  হোয়াইটওয়াশ করে বাংলাদেশ। ২০০৭ সালের ফেব্রয়ারিতে জিম্বাবুয়ে সফরে গিয়ে চার ম্যাচের সিরিজ ৩-১ এ জেতে টাইগাররা। দেশের বাইরে এটিই বাংলাদেশের প্রথম সিরিজ জয়। ওই বছরের নভেম্বরে বাংলাদেশে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে আসে জিম্বাবুয়ে। তবে, প্রতিটি ম্যাচে হেরে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা নিয়ে দেশে ফিরে সফরকারীরা। ডিসেম্বরে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় বাংলাদেশ।

সব মিলিয়ে ২০০৭ সালে বাংলাদেশ দল দেশ ও দেশের বাইরে তিনটি সিরিজ জেতে।

এর পর ২০০৮ সালে আয়ারল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ (৩-০) করে বাংলাদেশ। প্রতিটি ম্যাচেই বড় ব্যবধানে জেতে স্বাগতিকরা।

২০০৯ সালেও তিনটি সিরিজ জেতে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হোম ও অ্যাওয়ে দু’টি সিরিজেই জয় পায় বাংলাদেশ। ওই বছরেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়ে ৩-০ তে স্বাগতিকের হোয়াইটওয়াশ করে সাকিব আল হাসানের দল।

২০১১ সালে নিউজিল্যান্ডকে বাংলাওয়াশ (৪-০) করে মুশফিক বাহিনী। পরের বছর একটি সিরিজ জেতে বাংলাদেশ। ক্রিস গেইলের ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশ হারায় ৩-২ ব্যবধানে।

২০১৩ সালের অক্টোবরে ঘরের মাঠে আবারও কিউইদের বাংলাওয়াশের লজ্জা দেয় টাইগাররা। কাইল মিলসের নিউজিল্যান্ড টাইগারদের কাছে সিরিজ হারে ৩-০ ব্যবধানে।

২০১৪ সালের নভেম্বর-ডিসেম্বরে জিম্বাবুয়েকে ষষ্ঠ বারের মতো সিরিজ হারায় বাংলাদেশ। এবার ৫-০ তে হোয়াইটওয়াশ হয় সফরকারীরা।

এর পর ২০১৫ সালের এপ্রিলে পাকিস্তানকে রীতিমতো বলে কয়ে হোয়াইটওয়াশ (৩-০) করে বাংলাদেশ।

এবার ভারতের বিপক্ষে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে নিল মাশরাফি বাহিনী। এ নিয়ে টানা তিনটি সিরিজ জিতল বাংলাদেশ। আর ঘরের মাঠে শেষ ১০ ম্যাচে অপরাজিত থাকার কীর্তি দেখিয়ে নিজেদের শক্তির কথা আরো একবার জানান দিল টাইগাররা।

বাংলাদেশের সামনে এবার রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ। এ মাসের শেষ দিকে পূর্নাঙ্গ সিরিজ খেলতে ঢাকায় আসবে প্রোটিয়ারা।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

ডি মারিয়ার ফাইনালে খেলা অনিশ্চিত

স্পোর্টস ডেস্ক : ইনজুরি যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছেনা আর্জেন্টিনার মিডফিল্ডার ডি মারিয়ার। পানামার সঙ্গে ইনজুরিতে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open