মঙ্গলবার, নভেম্বর ২০, ২০১৮ : ১২:৪৩ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার ইরন মিয়াকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। সে পূর্বপাড়া নোয়াগাঁও গ্রামের মৃত আস্তফা মিয়ার পুত্র। বুধবার দিবাগত রাতে ইরনের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সাল থেকে ইরন মিয়া মেম্বার তার চাচাতো বোনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলেন। দীর্ঘদিন ৮ বছর ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। পাশাপাশি ঘরের বাসিন্দা হওয়ায় প্রায়ই গোপনে মেলামেশা করতেন তারা। ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে অবৈধ শারীরিক সম্পর্ক গড়ে উঠে। অবশেষে ২০১৭ সালের ১৩ আগষ্ট হঠাৎ অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে ওই তরুনী। বিষয়টি ওই তরুণী তার প্রেমিক ইরন মিয়াকে অবহিত করে ও তাকে বিয়ে করার জন্য প্রস্তাব দেয়। কিন্তু ইরন মিয়া তাকে বার বার বিয়ের আশ্বাস দিলেও নানা অজুহাতে সময় পার করতে থাকেন। ঘটনাটি জানা জানি হওয়ায় আত্মহত্যার চেষ্টা করেও ভাগ্যক্রমে বেঁচে যায় তরুনী। মঙ্গলবার বিয়ের দাবীতে তরুণী ইরন মিয়ার বসত ঘরে অনশন করেও ফল না পেয়ে ইরনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে থানায় অভিযোগপত্র দায়ের করেন। বুধবার বিকেলে অভিযোগটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়। ওই রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইরন মিয়াকে গ্রেফতার করে।

সকল অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে গ্রেফতার হওয়ার পূর্বে এব্যাপারে ইরন মিয়া মেম্বার বলেন, আমি ষড়যন্ত্রের শিকার।

ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের ও ইরন মিয়াকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামসুদ্দোহা পিপিএম।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেরা এশিয়া সুন্দরী প্রতিযোগী সিলেটী মারজানা চৌধুরী

আগামী নভেম্বরে ফিলিপাইনে অনুষ্ঠিতব্য ‘মিস এশিয়া প্যাসিফিক ইন্টারন্যাশনাল’ প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছেন বাংলাদেশি-আমেরিকান মারজানা চৌধুরী। তিনি …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open