বুধবার, জুলাই ১৭, ২০১৯ : ৭:১৮ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

সেই রাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ

78394আত্মহত্যা’ করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকতার জাহান জলির সাবেক স্বামী সহকর্মী তানভীর আহমদের বিরুদ্ধে এবার যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী।

হয়রানির শিকার ওই ছাত্রী সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দুই শীর্ষ কর্মকর্তা বুধবার সন্ধ্যায় যুগান্তরকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কর্মকর্তারা জানান, লিখিত অভিযোগে ছাত্রী উল্লেখ করেছেন- বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তানভীর আহমদ তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। পরে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ধারণ করে ব্লাকমেইল শুরু করেন।

ওই ছাত্রী সম্পর্ক রাখতে না চাইলে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি দেখিয়ে সম্পর্ক রাখতে বাধ্য করা হয়। সম্পর্ক ছিন্ন করলে ওই ছবি ছাত্রলীগের ছেলেদের দিয়ে দেয়া হবে এবং ছাত্রীর বাড়িতে পাঠাবেন বলে হুমকি দেন তানভীর আহমদ।

হয়রানির শিকার ওই ছাত্রী বলেন, ’আমি উনার (তানভীর আহমেদ) সঙ্গে রিলেশনে ইনভলবড হয়েছিলাম। পরে মানিয়ে নিতে পারিনি। সম্পর্ক ছিন্ন করতে চাইলে আগের ছবি দেখিয়ে ব্লাকমেইল শুরু করেন। রিলেশনে থাকতে হবে নইলে ছাত্রলীগের ছেলে-পেলেকে ছবি দিয়ে দেবে, ফ্যামিলির কাছে পাঠিয়ে দেবে বলে হুমকি দেন তিনি।’

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তানভীর আহমদ বলেন, ’বিশ্ববিদ্যালয় ভিসি স্যারকে যদি কেউ এমন অভিযোগ দিয়ে থাকে, তবে অবশ্যই আমাকে শোকজ করা হবে। তখন আমি অভিযোগের জবাব দেব।’

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মুহম্মদ মিজানউদ্দিন বলেন, ‘ঘটনা তদন্তে যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ সেলকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তারা সব বিষয় খতিয়ে দেখে সুপারিশ করবে। তাদের সুপারিশ অনুযায়ী সিন্ডিকেট সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

রাবি যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক সেলিনা পারভীন বলেন, ’বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে সামনে বৈঠক রয়েছে। বৈঠকের পর এ সংক্রান্ত তদন্তের কাজ শুরু করা হবে। সবার সহযোগিতা নিয়ে সুষ্ঠু তদন্ত সম্ভব হবে বলে আশা করছি।’

গত ৯ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের জুবেরী ভবনে নিজ কক্ষ থেকে শিক্ষিকা জলির লাশ উদ্ধার করা হয়। সেসময় কক্ষ থেকে ’সুইসাইড নোট’ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরদিন শিক্ষিকার ছোট ভাই কামরুল হাসান রতন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে নগরীর মতিহার থানায় ৩০৬ ধারায় আত্মহত্যায় প্ররোচণার মামলা দায়ের করেন। মামলাটির তদন্ত চলছে।

অন্য এক অভিযোগে তানভীর আহমদ ও তার বর্তমান স্ত্রী একই বিভাগের প্রভাষক সোমা দেবকে পাঁচ বছরের জন্য পরীক্ষা কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

তানভীর ও জলি দম্পতির একমাত্র ছেলে আয়মান সোয়াদ বাবার বিরুদ্ধে তার গলায় ছুরি ধরা এবং মা আকতার জাহান জলিকে মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন।

সর্বশেষ গত ৮ অক্টোবর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় যৌন হয়রানি ও নিপীড়ন নিরোধ সেলকে শিক্ষিকা জলির আত্মহত্যা এবং গণমাধ্যমে তানভীরের সম্পর্কে উঠে আসা ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব দেন। এর মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জমা পড়লো তানভীরের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

অস্ত্রধারী ছাত্রলীগ নেতাদের বহিষ্কার, ওবায়দুল বলছেন ‘অ‌্যাকশনের প্রমাণ’

ডেস্ক রিপোর্ট :: রাজধানীর গুলিস্তানে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে চলা সংঘর্ষের সময়ে ঢাকা দক্ষিণ …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open