শুক্রবার, অক্টোবর ৩০, ২০২০ : ৯:৫৮ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

নেশায় মত্ত যুবতীর বেসামাল অবস্থা

2ডেস্ক রিপোর্ট :: বৃটেনের বিভিন্ন শহরে মদ পানকারী যুবতীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাদের অনেকে মদ পান করে মদ্যপ অবস্থায় বেসামাল অবস্থায় পড়ে থাকেন রাস্তায়। এমন ছবি সহ রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে বৃটেনের প্রভাবশালী একটি পত্রিকায়। এমন নারীদের জরিমানা করছে পুলিশ। কিন্তু তারপরও তাদেরকে থামানো যাচ্ছে না। গত ৫ বছরে যুক্তরাজ্য পুলিশ প্রকাশ্যে মদ পান ও অসংলগ্ন আচরণের কারণে ৩৪ হাজারের বেশি নারীকে স্পটেই জরিমানা করেছে। কোন কোন ক্ষেত্রে এ জরিমানার অংক ৮০ পাউন্ড পর্যন্ত হয়। নিউক্যাসেল এলাকায় গত ৬ বছর অবৈধ মদ পান ও অসংলগ্ন আচরণের ওপর টহল দিচ্ছে নর্দামব্রিয়া পুলিশ। তারা এমন ৪৬২৯ নারীকে জরিমানা করেছে। এটাই সর্বোচ্চ সংখ্যা। এর পরে রয়েছৈ ল্যাঙ্কাশায়ার। সেখানে জরিমানা করা হয়েছে ৩৫৯৬ জন নারীকে। তৃতীয় স্থানে আছে মেরসিসাইড। সেখানে রয়েছে বিভিন্ন বার ও ক্লাব। হাজার হাজার যুবতীকে সেসব বারে দেখা যায় প্রতি সপ্তাহের ছুটির দিনে। কিন্তু তার পরের দৃশ্য আরও ভয়াবহ। দেখা যায়, মদ্যপ অবস্থায় রাস্তায় পড়ে আছেন কোন যুবতী। তার কাপড়চোপড়ের কোন ঠিক নেই। নেশায় বেসামাল। এ এলাকায় জরিমানা করা হয়েছে ৩৪১০ জন যুবতীকে। এ তিনটি স্থানের পরেরই চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে লন্ডন। কেন এত বেশি সংখ্যক নারী, বিশেষ করে যুবতী নেশায় আসক্ত হচ্ছে! এর উত্তর খুঁজতে গিয়ে জানা যাচ্ছে, বারগুলোতে মদ সহজলভ্য। এক পুলিশ অফিসার বলেছেন, নারীরা এখন শেষ রাতে মদ পান করে ভয়াবহ অবস্থায় পড়ে থাকেন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ২০০৯ সাল থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে ৩৪ হাজার ৩৮১ জন নারীকে এমন কর্মকা-ে জড়িত থাকায় জরিমানা করা হয়েছে। আদায় করা হয়েছে ২৭ লাখ ৫০ হাজার পাউন্ড। এর মধ্যে ২০১৪ সালে প্রতি সপ্তাহে শতাধিক নারীকে জরিমানা করা হয়েছে। ওই বছরে নর্থামব্রিয়া পুলিশ জরিমানা করেছে ৪৭৪ জনকে। এর মধ্যে ৪৬ জনই টিনেজার।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

প্রধানমন্ত্রীর জন্যই বাংলাদেশ বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে

নিউজ ডেস্ক : নরওয়ে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সর্ব ইউরোপিয়ান …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open