শুক্রবার, জানুয়ারী ২২, ২০২১ : ১০:৪৭ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

শেখ হাসিনা দেশ থেকে জঙ্গিবাদ উচ্ছেদে সফল হয়েছেন- অর্থমন্ত্রী

10246স্টাফ রিপোর্টার :: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, জঙ্গিবাদ বা সন্ত্রাস কখনোই কোন সমাজ ব্যবস্থা হতে পারেনা। জননেত্রী শেখ হাসিনা এদেশ থেকে জঙ্গিবাদ উচ্ছেদ করতে সফল হয়েছেন। আমরা সবাই যদি সৎপথে চলি তবে সমাজটা অনেক সুন্দর হবে। তিনি বলেন, আমাদের সমাজ এবং চরিত্র গঠনে ইমাম ও খতিবরা গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখেন। মানুষকে কখনো হুকুম দিয়ে নয় বরং জ্ঞানের আলো দিয়ে প্রভাব বিস্তার করা যায়। গতকাল মঙ্গলবার নগরীর শাপলাবাগস্থ আমানউল¬াহ কনভেনশন সেন্টারে ইসলামিক ফাউন্ডেশন, সিলেট-এর উদ্যোগে ‘সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ ও প্রাক-খুতবা পর্যালোচনা বিষয়ক খতিব সম্মেলনে’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর আমানউল¬াহ কনভেনশন সেন্টারে এ সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ ও প্রাক-খুতবা পর্যালোচনা বিষয়ক খতিব সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, শেখ হাসিনার সরকার সামাজিকভাবে জঙ্গিবাদ দমনে সফল হয়েছে। তিনি বলেন, ইমাম-খতিবরা ইসলামের শান্তির বানী প্রচারে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখছেন। ইমাম ও খতিবদের দায়িত্ব মানুষকে সৎ পথে চলতে সাহায্য করা। তারা এই দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে চলছেন। তবে আগামীতে আরো সচেষ্ট হতে হবে। কেউ যাতে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদে দিকে না যেতে পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রাক-খুতবায় আলোচনা করতে হবে।
সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন, সিলেট-এর সহকারী পরিচালক শাহ মুহাম্মদ নজরুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশন-এর মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল। প্রশিক্ষন প্রাপ্ত ইমাম মোঃ শফিকুর রহমানের পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশন বোর্ড অব গভর্নরস-এর গভর্নর অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ জালাল উদ্দিন আল-কাদেরী, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র  বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, ইসলামিক ফাউন্ডেশন বোর্ড অব গভর্নরস-এর গভর্নর আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমান চৌধুরী, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার এসএম রোকন উদ্দিন  প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে মোনাজাত পরিচালনা করেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন বোর্ড অব গভর্নরস-এর গভর্নর অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ জালাল উদ্দিন আল-কাদেরী।
স্বাগত বক্তব্যে সামীম মোহাম্মদ আফজাল বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি একজন খাটি মুসলমান ছিলেন। ইসলামের প্রচার ও প্রসারের জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশন তিনি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। উলামায়ে কেরামের জন্য কোন সরকারই কাজ করেনি, একমাত্র আওয়ামীলীগ ছাড়া। উলামায়ে কেরামদের মাধ্যমেই পৃথিবীর সর্বত্র শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব।
উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ বলেন, মসজিদ হলো পৃথিবীর সবচে পবিত্রতম স্থান। সেই স্থানের দায়িত্বে যারা আছেন অর্থাৎ ইমাম ও খতিবরা পৃথিবীর সবচে সম্মানিত ব্যক্তি। এই সম্মানিত ব্যক্তিদের কল্যাণে আমাদের কাজ করে যেতে হবে। ইসলামি ফাউন্ডেশন তার জন্মলগ্ন থেকে তাদের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে।
সাবেক সিটি মেয়র  বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, ইমাম ও খতিবরা আমাদের সমাজের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন ব্যক্তি। তিনি বলেন, আমাদের এই দেশটাকে কারো কাছ থেকে ভিক্ষা করে আনা হয়নি। অনেক ত্যাগ ও লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জন করা। কিছু উগ্রবাদী লোকেরা এই দেশকে জঙ্গীবাদী দেশ হিসেবে গড়তে ব্যর্থ চেষ্টা করে যাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে ইমাম ও খতিবরা গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রয়েছে।
সভাপতির বক্তব্যে সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, আমরা নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি লাভ করেছি। বর্তমানে আমরা খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ন একটি জাতি। কিন্তু আমাদের কিছু স্বাধীনতা বিরোধী মানুষ এই দেশকে জঙ্গিবাদের একটি মিথ্যে অপবাদ দিয়ে দেশকে পিছনে ফেলার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। আমাদেরকে তাদের বিরোদ্ধে সোচ্চার হতে হবে।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেই রাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ

আত্মহত্যা’ করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকতার জাহান জলির সাবেক …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open