বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৯, ২০২০ : ৮:০৫ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

একুশের হাত ধরে বইমেলা

imagesঅহী আলম রেজা :: বইমেলা প্রাণের মেলা। একুশ আমাদের মায়ের ভাষায় কথা বলার অধিকার দিয়েছে। একুশের হাত ধরে এসেছে বইমেলা। আজ ৬৪ বছর পর বইমেলা পরিণত হয়েছে প্রাণের মেলায়। এর প্রেক্ষাপট অনেক বিস্তৃত এবং এ জন্য শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করতে হয় মুক্তধারা প্রকাশনীর প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত চিত্ত রঞ্জন সাহাকে। আমাদের জাতীয় যত অর্জন রয়েছে সবই ত্যাগ ও রক্তের বিনিময়েই অর্জিত হয়েছে। এই জাতিকে সব সময় আন্দোলন-সংগ্রাম করে, বুকের রক্ত দিয়ে যুগে যুগে ন্যায্য দাবি আদায় করতে হয়েছে।
১৯৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারির অধ্যায়টি এমনই একটি অধ্যায়। মায়ের ভাষাকে প্রতিষ্ঠিত করতে বাঙালি জাতি সেদিন যে অনন্য দৃষ্টান্ত ও ত্যাগের মহিমায় নিজেদের ভাস্বর করে তোলে তা আজ সারা বিশ্বে যথাযোগ্য মর্যাদায় স্মরণ করা হয় এবং পালিতও হয় সেভাবেই। একুশ মানে প্রেরণা। একুশ মানে বাঙালির অন্যতম পুষ্ট চেতনা। একুশের সড়ক ধরেই আমরা অর্জন করেছি আমাদের স্বাধীনতা। একুশ মানে মাথা নত না করা। একুশ মানে প্রতিবাদ, একুশ মানে বিজয়। একুশকে স্মরণ করেই প্রতি বছর বাংলা একাডেমি চত্বরে মাসব্যাপী চলে বইমেলা। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এই মেলার পরিসর বেড়েছে, ঔজ্জ্বল্য বেড়েছে। বেড়েছে আরো অনেক কিছু। বাংলা একাডেমি চত্বর তো বটেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এবার বইমেলা হচ্ছে। স্টলের সংখ্যা বেড়েছে। বেড়েছে মেলার আকর্ষণ এবং সৌন্দর্য।
একুশের বইমেলাকে আজ আমরা গর্বভরে উচ্চারণ করি আমাদের গ্রন্থপার্বণ হিসেবেও। পুরো মাস বাঙালির প্রাণের এই মেলাকে ঘিরে চলে কত রকম উচ্ছ্বাস। একুশের অন্যতম চেতনা ছিল—রাষ্ট্রীয় জীবনে অসাম্য, বৈষম্য, দুর্বলের ওপর সবলের আধিপত্য ইত্যাদির অবসান ঘটানো।
বাঙালির মিলনমেলা একুশের গ্রন্থপার্বণ আমাদের চেতনায় নতুন করে অনেক কিছু যুক্ত করে। এই মিলনমেলা আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে অনুপ্রেরণা জোগায়। এই মিলনমেলা সব অন্ধকারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে আমাদের শক্তি জোগায়। এই মেলা আমাদের বিকাশের পথ প্রশস্ত করে দেয়। এই মেলা আমাদের জাগ্রত করে অন্য রকমভাবে। সময় বদলালেও সংস্কৃতি ও ভাষার প্রতি মানুষের প্রেম কমছে না, বরং দিন দিন বেড়েই চলেছে। এটিই আমাদের বড় শক্তি ও আশার বিস্তৃত ক্ষেত্র।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

এবার থেকেই অষ্টম শ্রেণিতে ‘প্রাথমিক সমাপনী’

নিউজ ডেস্ক : পঞ্চম শ্রেণিতে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা এবারই তুলে দেয়া হচ্ছে। ফলে পঞ্চম শ্রেণিতে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open