বুধবার, ডিসেম্বর ৮, ২০২১ : ৯:২৪ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

গোলাপগঞ্জে তিনটি পরিবারকে ষড়যন্ত্রমূলক মামলার প্রতিবাদে ইউএনও বরাবরে স্মারকলিপি

indexগোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি : গোলাপগঞ্জের একটি গ্রামের তিনটি নিরীহ পরিবারের মানুষকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মামলায় আসামি করার প্রতিবাদে শতাধিক মানুষের স্বাক্ষরিত একটি স্মারকলিপি গতকাল রোববার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আশরাফুল আলমের বরাবর প্রদান করে লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নের নোয়াই দক্ষিণভাগ কান্দিপাড়া গ্রামের মৃত ইছহাক আলীর ছেলে শাব উদ্দিন, মৃত আরব আলীর ছেলে আব্দুল হামিদ ও ছমির আলীর ছেলে কোকিল আহমদ।
স্মারক লিপি সুত্রে জানা যায়, লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নের নোয়াই দক্ষিণভাগ কান্দিপাড়া গ্রামের মৃত মউর আলীর ছেলে ছায়াদ আলী (২৮) বিগত ৮ বছর আগে নন সিলেটি পারভীন নামের এক মহিলাকে তার আগের স্বামীর ছেলে শাকিলসহ বিয়ে করেন। গত ২ জানুয়ারী ছায়াদ আলী সৎ ছেলে শাকিল আহমদকে (১১) নিজে এলাকার সুরুজ টিলা নামক স্থানে একটি গভীর জঙ্গলে নির্মমভাবে খুন করে।
এঘটনায় একই গ্রামের তেরা মিয়ার স্ত্রী ও ছায়াদ আলীর বোন বেদেনা বেগম(৩০) বাদী হয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা করেন। মামলা নং ১, তারিখ ২/১/১৬ ইং।
এঘটনায় মামলার একমাত্র এজহারভুক্ত আসামী ছায়াদ আলীকে থানা পুলিশ আটক করার একদিন পর গ্রামের মৃত ইছহাক আলীর ছেলে আলা উদ্দিনকে ও (৪০) গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ সন্দেহ ভাজন গত ৩ জানুয়ারী আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এঘটনায় আরো তিনজন সন্দেহ ভাজন আসামী হচ্ছেন মৃত আরব আলীর ছেলে হাফিজ মো. আব্দুল হান্নান (২২), ছমির আলীর ছেলে গিয়াস উদ্দিন (৩০) ও মুনিম আহমদ (২৫)। তাদেরকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মামলার আসামী করায় এলাকাবাসীর মধ্যে বিষণ ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। এলাকাবাসী এঘটনার সুষ্ঠ তদন্তের জন্য উর্ধ্বতন কৃর্তপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ : মন্দিরের জমি দখল নিতে পুরোহিতের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টা মামলা

প্রভাবশালী এক আওয়ামী লীগ নেতার যোগসাজশে মন্দিরের জায়গা দখলের জন্য স্থানীয় কিছু লোক এসব ঘটনা …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open