মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৭, ২০২০ : ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

প্রধানমন্ত্রীর জনসভা ঘিরে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা

15337 ডেস্ক রিপোর্ট :: দু’দিন আগেই সিলেট সার্কিট হাউসে এসে পৌঁছেছে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় নিয়োজিত বিশেষায়িত বাহিনী এসএসএফ’র গাড়ি বহর। নগরীতে চষে বেড়াচ্ছেন রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার চৌকস কর্মকর্তারা। শহরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের দেয়াল থেকে শুরু করে নগরীর অলিগলির দেয়ালে দেয়ালে প্রিয় নেত্রীকে স্বাগত জানিয়ে পোস্টার সাটানো হয়েছে। প্রধান প্রধান সড়কের একটু পর পর বর্ণিল ব্যানার-ফেস্টুন আর তোরণ। এছাড়া বিপনীবিতান ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনেও তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আসবেন বলে নতুন সাজে সেজেছে নগরী, জনসমাবেশস্থল আলিয়া মাদ্রাসার মাঠও প্রস্তুত করা হচ্ছে। মাদ্রাসা মাঠ ঘিরে জোরদার করা হয়েছে ছয় স্তরের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
এসএমপি পুলিশ সূত্র জানায়, এসএসএফ প্রথম স্তরেই কাজ শুরু করে দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী’র আসা-যাওয়ার সড়ক ও যোগদানস্থল সম্পর্কে পনেরো দিন আগে তথ্য নেয় এসএসএফ। আগামিকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী যেসব স্থানে অনুষ্ঠানে যোগ দিবেন, সবখানেই প্রধানমন্ত্রীকে কর্ডন করে থাকবে এসএসএফ। তারপরেই থাকবে গোয়েন্দা দল। এরপরই থাকবে ইনার কর্ডন ও আউটার কর্ডন নিরাপত্তা। রুট নিরাপত্তা, সাদা পোশাকের পুলিশ স্তর ও ইন্টেলিজেন্স স্তর।
গোয়েন্দা সূত্র জানায়, ইতোমধ্যে এসএসএফ কর্মকর্তারা আলিয়ার মাঠসহ সকল যোগদানস্থল একাধিকবার পরিদর্শন করেছেন। সিলেটের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নিরাপত্তা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের পাশাপাশি সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন। ওই সভা থেকে দিক নির্দেশনা নিয়ে এসএসএফ রাষ্ট্রীয় দুটি গোয়েন্দা দল, র‌্যাব ও পুলিশ নিয়ে নিরাপত্তা পরখ করে নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা খেয়াল রেখেই আলিয়ার মাঠের সমাবেশের মঞ্চ স্থাপন করা হয়েছে।
ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার স্বার্থে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট সঙ্গে থাকবে। পাশাপাশি ওসমানী মেডিকেল ও ফায়ার সার্ভিসের দুটি অ্যাম্বুলেন্সও সঙ্গে রাখা হবে।
ট্রাফিক পুলিশ সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রীর সফর উপলক্ষে সমাবেশের দিন সিলেটের দূর দূরান্ত থেকে আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা গাড়ি নিয়ে আসবেন। ইতোমধ্যে, সিলেটের বিভিন্ন বাস-মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড থেকে গাড়ি ঠিক করে রেখেছেন দলীয় নেতাকর্মীরা। এসব গাড়ি ও লোকসমাগমে সিলেট নগরে যাতে দুর্ভোগ ও বিশৃঙ্খলা তৈরি না হয়, সে জন্য অতিরিক্ত ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েন থাকবে। ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে সিলেটের বিভিন্ন স্থানের বাস-মাইক্রোবাস চালক সমিতিকে কিছু নির্দেশনা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ওই দিন সিলেট শহরতলীতে এসে গাড়ি থেকে যাত্রীদের নামিয়ে দিতে বলা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সিলেট নগরীতে থাকাবস্থায় সব কটা সড়কে যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত ও কিছু সড়কে বন্ধ থাকবে। প্রধানমন্ত্রী সিলেট ত্যাগের পর যান চলাচল স্বাভাবিক করে দেওয়া হবে।
র‌্যাব-৯ এর সূত্র জানায়, মূলত র‌্যাবের তিন স্তর বিশিষ্ট নিরাপত্তা থাকবে। প্রথম স্তরে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল, দ্বিতীয় স্তরে র‌্যাবের ইন্টেলিজেন্স দল ও তৃতীয় স্তরে টহল দল থাকবে। এছাড়াও সমাবেশ স্থলের আশপাশের ভবনের ওপর দূরবীণসহ র‌্যাব সদস্যরা নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকবেন।
এসএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) মুহাম্মদ রহমত উল্লাহ বলেন,‘ সিলেটে ছয় স্তরের নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী সমাবেশ চলাকালে একেক টিম একেক দায়িত্ব পালন করবে।’

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেই রাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ

আত্মহত্যা’ করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকতার জাহান জলির সাবেক …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open