রবিবার, অক্টোবর ২৫, ২০২০ : ১:৫৪ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

লালদিঘীরপাড়ের পলিথিন আলী কারাগারে

Untitled-1 copyস্টাফ রিপোর্টার :: সিলেটের লালদিঘীরপাড়ের অবৈধ পলিথিন ব্যবসায়ীদের গডফাদার আলী হোসেন সরকারকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পরিবেশ অধিদপ্তরের দায়ের করা মামলা ও র‌্যাবের দায়ের করা ৩ ট্রাক পলিথিন পাচারের মামলায় তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। গতকাল সোমবার সিলেটের চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত তাকের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
মামলা সূত্র জানায়, আলী হোসেন সরকার দীর্ঘদিন যাবৎ সিলেটের লালদিঘীরপাড়ের একটি দোকানে থেকে পলিথিন ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করে আসছিল। সে সিলেটের সব দোকানে তার সিন্ডিকেটের মাধ্যমে পলিথিন সরবরাহ করে। মোরগের বস্তা বোঝাই পলিথিন দোকানে দোকানে পাঠাতো তার বিক্রয় কর্মীরা। পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে তার দোকানে অভিযান দিয়ে কয়েক ট্রাক পলিথিন জব্দ করেন। এছাড়াও পরিবেশ অধিদপ্তর বেশ কিছু বিক্রেতার দোকান থেকে কয়েক বস্তা পলিথিন জব্দ করে উপশহরে গুদামে নিয়ে রাখে। কিন্তু পলিথিন আলী তার দোকানের সহযোগীদের নিয়ে রাতের আঁধারে গিয়েছিল সেই পলিথিন চুরি করতে। এসময় হাতে নাতে ধরা পড়ে আলী  সরকার। তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করা হয়। এই মামলাটি তদন্তাধীন অবস্থায় জামিনে ছিল আলী। পরে তার জামিন বাতিল হয় এবং মামলার চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ।
এদিকে, র‌্যাব-৯ এর একটি দল করিম উল্লাহ মার্কেটের সামন থেকে গভীর রাতে আলীর পাচারকৃত এক ট্রাক পলিথিন জব্দ করেছিল। এ ঘটনায় সিলেট কোতোয়ালি থানায় মামলা করে র‌্যাব। এই মামলাটিরও পলাতক আসামি ছিল আলী।
লালদিঘীরপাড়ের সূত্র জানায়, আলী সরকার নিজেকে কখনো সমগ্র বাংলাদেশ মিডিয়া  পত্রিকার সাংবাদিক দাবি করে। মূলত এর আড়ালে সে জর্দা ও পলিথিনের কারখানা গড়ে তুলেছিল। বিগত বছরে ডিবি পুলিশ তাকে লালাবাজারের কালাম সেন্টারের গুদাম থেকে ভেজাল জর্দা ও পলিথিনের যন্ত্রসহ আটক করে। অভিযোগ রয়েছে, ইদানিং ডিবি পুলিশের লাইনম্যানকে ম্যানেজ করে আবার আলীর পলিথিন চক্র সক্রিয়।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেই রাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ

আত্মহত্যা’ করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকতার জাহান জলির সাবেক …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open