মঙ্গলবার, অক্টোবর ২০, ২০২০ : ৫:৪৬ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

ফেব্র“য়ারি থেকে ট্রেন ভাড়া ৭.৮ শতাংশ বাড়ছে

imagesডেস্ক রিপোর্ট:  লোকসান কমাতে আগামী মাস থেকেই ট্রেনের যাত্রীদের গুণতে হবে বাড়তি ভাড়া। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর ফেব্র“য়ারি থেকেই ৭.৮ শতাংশ ভাড়া বাড়বে। ভাড়া বৃদ্ধির এ হার এখন থেকে প্রতিবছরই চাহিদা অনুযায়ী বাড়ানো হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর রেলভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এমনটাই জানালেন রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক ও মন্ত্রণালয়ের সচিব েেমা. ফিরোজ সালাহ উদ্দিন।
রেল ভবনকে ওয়াইফাই সুবিধার আওতায় আনা উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশে ট্রেনের ভাড়া ৭ দশমিক ৮ শতাংশ বাড়াতে চায় রেল কর্তৃপক্ষ, যা ফেব্র“য়ারি  থেকেই কার্যকর করার ইচ্ছার  কথা বলেছেন মন্ত্রী মুজিবুল হক। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। তার অনুমতি সাপেক্ষে আগামী মাস থেকেই রেলের ভাড়া বাড়বে। রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি যাত্রী সেবার মান ঠিক  রেখে  ট্রেন ভাড়া বাড়ানোর পরামর্শ দেওয়ার দুই দিনের মাথায় ভাড়া বাড়ানোর এই উদ্যোগের কথা জানালেন রেলমন্ত্রী। এবার ভাড়া কী হারে বাড়ছে জানতে চাইলে রেলসচিব ফিরোজ সালাহউদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো প্রস্তাবে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে। সচিব বলেন, এতে সর্বনিম্ন ভাড়া বাড়বে পাঁচ টাকা। আর ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের ট্রেনে  শোভন  শ্রেণির ভাড় ৪৫ টাকার মতো বাড়তে পারে। রেলওয়েকে লোকসানের হাত থেকে বাঁচাতে ভাড়া বাড়ানোর এই উদ্যোগ। এখন থেকে প্রতি বছরই রেল ভাড়া সমন্বয় করা হবে। তবে জ্বালানি তেলের দাম না বাড়লে কখনোই তা সাড়ে ৭ শতাংশের বেশি হবে না।মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর আগামি মাস থেকে ট্রেনের ভাড়া বাড়বে। যাত্রীদের উন্নত সেবা নিশ্চিত করতে ভাড়া বাড়ানো হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে কত শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হচ্ছে জানতে চাইলে মন্ত্রী সচিবের দিকে ইঙ্গিত করেন। এরপর রেলমন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ফিরোজ সালাহ উদ্দিন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে ৭.৮ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এটা অনুমোদন হলে আগামি মাস থেকেই কার্যকর হবে। তিনি বলেন, এ ভাড়া বৃদ্ধির হার  যে খুব বেশি তা নয়। দুরুত্ব অনুযায়ী সর্বোচ্চ ৪৫ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৫ টাকা বাড়বে।এরপর আর ভাড়া বাড়বে কি-না জানতে চাইলে সচিব বলেন, হ্যা ভাড়া প্রতিবছর এক থাকবে না। এটার পরিবর্তন হবে। আগামি বছর থেকে তেলের দামসহ পারিপার্শিক অবস্থার সঙ্গে সমন্বয় রেখে ভাড়ার পরিবর্তন হবে। সচিব বলেন, রেলের ভাড়া ১৯৯২ সালে বাড়ার পর এরপর ২০ বছর পর ২০১২ সালে বাড়ানো হচ্ছে।অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক জানান,  রেলভবন ওয়াই-ফাই সিস্টেম আওতায় আনা হয়েছে। নতুন এই তথ্যপ্রযুক্তি সিস্টেম স্থাপনের ফলে  রেলভবনে কর্মরত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং দেশি-বিদেশি সকল অতিথিবৃন্দ সরকারি ব্যয়ে ইন্টারনেট সুবিধা পাবেন। এই কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে রেলভবনে ওয়াই-ফাই পুরোপুরি কার্যকর করতে ইতোমধ্যে ২টি সার্ভার ও ফায়ারওয়াল, ২টি ওয়্যারলেছ ল্যান কন্ট্রোলার, ৩০টি একসেস পয়েন্ট টাইপ-১, ২৫টি একসেস টাইপ-২, ৯টি পাওয়ার ওভার ইন্টারনেট সুইচ ও হার্ডওয়্যারসহ ১টি নেটওয়ার্ক ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার স্থাপন করা হয়েছে। রেলপথ মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার ডিজিটালবান্ধব। তথ্যপ্রযুক্তির দিক থেকে এ দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। রেলভবন ছাড়াও  দেশের গুরুত্বপূর্ণ ৬২টি স্টেশনে ওয়াই ফাই সিস্টেম চালু করা হয়েছে। রেল সচিব ফিরোজ সালাহ উদ্দিন বলেন, রেলভবনে ওয়াই ফাই চালু হয়েছে। আধুনিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রযুক্তি আনা হবে। এ সময় অতিরিক্ত মহাপরিচালক (রোলিং স্টক) খলিলুর রহমান, জিএম মোজাম্মেল হকসহ  রেলপথ মন্ত্রণালয় ও রেলওয়ের বিভিন্ন অঞ্চলের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বেতন স্কেল ১০ গ্রেডে উন্নীতকরণের দাবি প্রধান শিক্ষকদের

ডেস্ক রিপোর্ট :: দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড (নন-ক্যাডার) প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন উভয় প্রধান শিক্ষকদের প্রবেশ পদে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open