বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২১, ২০২১ : ২:২৩ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

আন্দোলন নিয়ে শিক্ষকদের পিছুটান

sikkho_samity_new_98539ডেস্ক রিপোর্ট: টানা তিনদিনের ধর্মঘটের পর চতুর্থদিনে এসে আশার আলো দেখছেন বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে আন্দোলন করতে থাকা ৩৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। নানামুখী আলোচনা সমালোচনার পর আন্দোলন কর্মসূচির চতুর্থ তিন বৃহস্পতিবার সকালে শিক্ষকরা হঠাৎ বলতে শুরু করেছেন, তাদের সমস্যা সমাধানে সরকারকে আন্তরিক মনে হচ্ছে। আশা করা হচ্ছে খুব শিগগির এই সমস্যার সমাধান হবে।তবে হঠাৎ কী এমন হলো যার কারণে আপনার আশার আলো দেখছেন সে ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে শিক্ষক ফেডারেশনের সভাপতি ফরিদ উদ্দিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী প্রকাশ্যে জনসভায় বলেছেন যে তিনি ছেলে মেয়েদের পড়াশুনা বন্ধ করে আন্দোলন বন্ধ করতে বলেছেন, তিনি বলেছেন দাবি-দাওয়ার বিষয়টি আলোচনা করে সুরাহা করা হবে।আমরা সরকার প্রধানের ঐ বক্তব্যের ব্যাপারে আস্থা রাখতে চাই।তিন দিন আগে প্রধানমন্ত্রীর ঐ বক্তব্যকে আমাদের কাছে আন্তরিক মনে হয়েছে।
আজ সকালে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি ফরিদ উদ্দিন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক এ এস এম মাকসুদ কামাল সাংবাদিকদের কাছে হঠাৎ একই সুরে কথা বলতে শুরু করেন।তিন দিন আগে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় প্রধানমন্ত্রীর ঐ বক্তব্যের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় ফরিদ উদ্দিন বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী সচিবদের পক্ষ নিয়ে কথা বললে তো সমস্যার সমাধান হবে না।দাবি আদায় হলেই আমরা আন্দোলন থেকে সরে আসবো।
আজ সকালে মাকসুদ কামাল সাংবাদিকদের বলেন, “শিক্ষকদের সমস্যা সমাধানে সরকারকে বেশ আন্তরিক মনে হচ্ছে। আশা করছি খুব শিগগির আন্দোলন কর্মসূচির সমাপ্তি হবে। শিক্ষকরা ক্লাসে ফিরে যাবে।”ফেডারেশনের সভাপতি ফরিদ উদ্দিন বলেন, পদমর্যাদা নিয়ে শিক্ষকদের দাবি যৌক্তিক। আমাদের কাছে মনে হচ্ছে খুব শিগগির এই সমস্যার সমাধান হবে।
কি দেখে সরকারকে আন্তরিক মনে হচ্ছে সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন কোন সমস্যা থাকলে তা দেখা হবে। শিক্ষার্থীদের বেশিদিন ক্লাসের বাহিরে রাখা যাবে না। তার কথায় মনে হচ্ছে তিনি শিক্ষকদের সমস্যা সমাধানে বেশ আন্তরিক।ধর্মঘটের ফলে ছাত্রদের ক্ষতি হয়েছে তা আমরা পুষিয়ে নেব।সে ব্যাপারে আমাদের চিন্তাভাবনা রয়েছে ।এ ব্যাপারে শতভাগ নিশ্চয়তা দিচ্ছি।
ছাত্রদের উদ্দেশে তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের আর বেশিদিন ক্লাসের বাইরে থাকতে হবে না। কিছুদিনের মধ্যেই ক্লাস শুরু হবে। ছেলেমেয়েদের ক্ষতি হবে না এ ব্যাপারে আমি তাদের নিশ্চিত করতে চাই।
উল্লেখ্য, অষ্টম জাতীয় বেতন স্কেলে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বৈষম্য নিরসনের দাবিতে গত সোমবার থেকে লাগাতার ধর্মঘট শুরু করে ৩৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।
অর্থমন্ত্রীর দেয়া প্রতিশ্রুতি পূরণ ও অন্য অসঙ্গতি দূর না হওয়া পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়েল সব ধরণের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার ঘোষণা দেয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সংগঠন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

এবার থেকেই অষ্টম শ্রেণিতে ‘প্রাথমিক সমাপনী’

নিউজ ডেস্ক : পঞ্চম শ্রেণিতে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা এবারই তুলে দেয়া হচ্ছে। ফলে পঞ্চম শ্রেণিতে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open