মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৭, ২০২০ : ৮:৪৫ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

সিলেটে জঙ্গি তালিকা সতর্কাবস্থানে পুলিশ মসজিদ ও গোপন বাসায় জঙ্গিদের অনলাইন ভিত্তিক তৎপরতা

indexস্টাফ রিপোর্ট: কারাগারে ও বাইরে অবস্থানকারী সিলেট কাঁপানো শীর্ষ জঙ্গিদের অবস্থান সম্পর্কে তথ্য নথিভুক্ত করেছে পুলিশ। সিলেটে মসজিদ ভিত্তক জঙ্গি হামলার আশঙ্কা থেকে এসব তথ্য হালনাগাদ করা হয়েছে। রাষ্ট্রীয় দুটি বিশেষ গোয়েন্দা সূত্রে ও গোয়েন্দা পুলিশের একটি নথিসূত্রে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।
এসএমপি পুলিশ সূত্র জানায়, সিলেট নগরীতে মসজিদ ভিত্তিক আত্মঘাতি বোমা হামলার আশঙ্কায় পুলিশ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। ইতোমধ্যে বিশেষ গোয়েন্দা পুলিশের মাধ্যমে সিলেটের ঝুঁকিপূর্ণ মসজিদ, মাজার নজরদারি করেছেন গোয়েন্দারা।
গোয়েন্দা তথ্যমতে, সিলেটে গোপনে হিযবুত তাহরির মসজিদ ভিত্তিক ও গোপন বাসায় বসে অনলাইন ভিত্তিক দাওয়াতি কাজ করেছে এতদিন। এছাড়াও সিলেটে আছে আনছারুল্লাহ বাংলাটিম, জেএমবি’র তৎপরতা আছে বলে প্রমাণ পেয়েছে গোয়েন্দারা। এসব জঙ্গিরা সংগঠতি হচ্ছে বলে ধারণা গোয়েন্দাদের। কারাগারে বন্দি শীর্ষ জঙ্গিদের সহযোগীরা জামিনে ও পলাতক থেকে এই তৎপরতাকে আরও গতিশীল করার চেষ্টা করছে। আর এতে কিছু কিছু মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিনদের জড়িত থাকার তথ্য পেয়েছেন গোয়েন্দারা। অতীতে সিলেটে মসজিদে বোমা উদ্ধারের ঘটনায় দুজন ইমাম ও একজন মুয়াজ্জিন গ্রেপ্তার হলেও তারা পরে খালাস পেয়ে যান। এতে ইমাম ও মসজিদ ভিত্তিক সুসাইডাল তৎপরতার আশঙ্কা দেখা দিছে। যে কারণে, সিলেটে পুলিশের ডিআইজি ও এসএমপি কমিশনার বিভিন্ন এলাকার আলেমদের সঙ্গে সচেতনতা বাড়াতে সেমিনার করছেন। গোয়েন্দারা ঝুঁকিপূর্ণ মসজিদ ও ইমামদের ওপর নজরদারি বাড়িয়েছেন।
জঙ্গি মামলার নথি অনুযায়ী, সিলেটের টিলাগড়ে আটক শায়খ আবদুর রহমানের ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। তার দেহরক্ষী হৃদয় চৌধুরী, আবদুল আজিজ হানিফ সিলেট কারাগারে বন্দি আছেন। শায়খ রহমানের স্ত্রী নুরজাহান, হৃদয়চৌধুরীর স্ত্রী চামেলী বেগম জামিনে আছেন। সিলেট কারাগারে বন্দি শীর্ষ জঙ্গিরা হলেন, মহসিন খান (১০ বছর সাজাপ্রাপ্ত), আবদুল হাই (১০ বছর সাজা), হাবিবুর রহমান ইউসুফ, মফিজুল ইসলাম, মুফতি মইন উদ্দিন আবু জান্দাল, সাব্বির আহমদ দুলাল, মাওলানা আবু সাইদ। কাশিমপুর কারাগারে বন্দিরা হলেন, মুফতি আবদুল হান্নান, শরীফ শাহেদুল আলম বিপুল, দেলওয়ার হোসেন রিপন, হাফেজ নইম আহেমদ আরেফ, আক্তারুজ্জামান। পলাতক আছেন শীর্ষ জঙ্গি হুমায়ুন কবির হিমু, মাওলানা তাজ উদ্দিন, হিযবুত কর্মী সুহেব ও রহিম। বোমা উদ্ধার মামলা থেকে খালাস পেয়েছেন নগরীর বাঙ্গাটিকর মসজিদের ইমাম মাওলানা সাইফ উদ্দিন , বনকলাপাড়া বায়তুল ফালাহ মসজিদের মুয়াজ্জিন মাওলানা জামাল উদ্দিন। এছাড়া সিলেটে জঙ্গি মামলায় অর্ধশত আসামি জামিনে আছেন।
হালনাগাদ তালিকার আরও জঙ্গিরা হলেন, আবু বক্কর সিদ্দিক, জোবায়ের মাহমুদ, ওয়াবায়দুল্লাহ, বদরুল আলম মিজান, কবির হোসেন, আফিফা, সাইফুর রহমান সাইফুল্লাহ, মাসুদ আহমদ শাকিল, আবু ওবাইদ হারুন, ডাক্তার আরিফ আহমদ রিফা, শেখ শাহজাহান, মাজেদ বাট, ফরহাদ শফি চৌধুরী, মাহফুজুর রহমান, মুশফিকুর রহমান, আশরাফুজ্জামান, জুম্মান চৌধুরী, মেহেদি হাসান অমি, আলী আহমদ, রেদওয়ান, জুনেদ সানি, মাহির উদ্দিন চৌধুরী, ইমরান হোসেন, মাহবুব ইকবাল, রকিবুল হায়দার, আমজাদ হোসেন, সাইদ মিয়া, মাকসুদুল হক, হাবিবুল হক, রেজাউল আনসারি, রিফাত হোসেন, আতিক হিমেল, জুয়েল আহমদ, জুলহাসনাইন, জাহেদ আহমদ, জসিম উদ্দিন সাগর, ছদরুল আমিন, শফিকুল শামিম, তানভির, সাদিকুল ইসলাম, আহমদ শরিফ, আহেমদ তানেক, জাকির, বানহার ও তানিম।
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মো রোকন উদ্দিন বলেন,‘ জঙ্গি হামলার আশঙ্কা থেকে সচেনতা বাড়াতে মসজিদের ইমামদের ও মুসল্লিদের নিয়ে সেমিনার করা হচ্ছে। এবং কাউকে ব্যাগ নিয়ে ঢুকতে দেখলে ওই ব্যাগ বহনকারীকে দিয়ে ব্যাগ তল্লাশির জন্য বলা হচ্ছে। এছাড়া পুলিশের নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।’
সিলেট রেঞ্জ পুলিশের ডিআইজি মো. মিজানুর রহমান বলেন,‘ সিলেটে জঙ্গি হামলার গোপন তথ্য পুলিশের কাছে রয়েছে। তাই সবাইকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।’

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open