বুধবার, নভেম্বর ২৫, ২০২০ : ১০:৫৮ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

সালিশ বৈঠকে হামলার ঘটনা পৃথক মামলায় আসামী ২৫ আটক ৩

indexস্টাফ রিপোর্টার :: দক্ষিণ সুরমা কুচাই তৈয়বকামাল গ্রামে সালিশ বৈঠকে সশস্ত্র হামলার ঘটনায় পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রথম মামলাটি করেন তৈয়বকামাল গ্রামের মৃত আব্দুল বারীর ছেলে মো. লায়েছ আহমদ বাদি হয়ে একই গ্রামের লম্পট কুতুব উদ্দিনকে আসামী করে যৌন সহবাস করার অপরাধে এবং দ্বিতীয় মামলাটি করেন একই গ্রামের মৃত হাফিজ আব্দুস ছামাদের ছেলে নাজিম উদ্দিন বাদি হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১০/১২ জনকে আসামী করে মোগলাবাজার থানায় মারামারির অপরাধে মোগলাবাজার থানায় এ মামলাগুলো দায়ের করা হয়। নং-৫ ও ৬ (০৯-০১-১৬)।
পৃথক মামলার আসামীরা হচ্ছে- তৈয়বকামাল গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফের ছেলে কুতুব উদ্দিন (৫৬) তার সহোদর শফিক উদ্দিন (৫২), রফিক উদ্দিন (৪৭) তার ছেলে জাবির (২৭), বলদী গ্রামের বসারত আলীর ছেলে ছৈয়ল মিয়া (৫৭), পশ্চিম বাগ নোয়াগাও গ্রামের আল-আমিনের ছেলে আলমগীর (৩৫), শেখপাড়ার ফখরুল ইসলাম (২৮), একই এলাকার ছানা (৩৯), গোলাপগঞ্জের রানাপিং গ্রামের চান মিয়ার ছেলে তারেক (২০) তার সহোদর জুনেদ (২২), কুচাই মাঝপাড়ার আকদ্দছ আলীর ছেলে মো. হায়দার (৪০) ও পশ্চিমবাগের বুদু মিতয়ার ছেলে ইমন মিয়া (২৬)। এর মধ্যে পুলিশ ঘটনারদিন রাতে আলমগীর, মো. হায়দার ও ইমন মিয়াকে আটক করে। গতকাল পুলিশ আটককৃতদের আদালতে হাজির করে। পরে আদালত তাদেরকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।
মোগলাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল বলেন, এ ঘটনায় পৃথকভাবে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আটক আমলগীর, হায়দার ও ইমন মিয়াকে গতকাল আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামী কুতুব উদ্দিনসহ সকলকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।
উল্লেখ্য, গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৭ টার দিকে তৈয়বকামাল গ্রামে লায়েছ আহমদ (১৭) নামের কিশোরকে বলৎকার করার ঘটনায় তৈয়বকামাল গ্রামের পঞ্চায়েত গ্রামবাসী এর প্রতিকারের জন্য আলোচনায় বসেন। এ সময় লম্পট কুতুব উদ্দিন ও রফিক উদ্দিনের নেতৃত্বে ধারালো অস্ত্রসহ সন্ত্রাসীরা হামলা করে। এতে ঘটনাস্থলে হাজী নুর উদ্দিন, মুহিন আহমদ, শাহান উদ্দিন, মাসুম আহমদ, সহির উদ্দিন ও সুমন আহত হন। পরে আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেই রাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ

আত্মহত্যা’ করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকতার জাহান জলির সাবেক …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open