সোমবার, নভেম্বর ৩০, ২০২০ : ৫:১১ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

শাল্লায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১৫

Picসুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলায় কামারগাঁও গ্রামে (চুরের গ্রামে) পূর্ব বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে  আবদুল জলিল (৩৮) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১৫জন।  গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিক এ ঘটনা ঘটে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।
এদিকে বিকেল ৫টায় কামারগাও গ্রামের প্রতিপক্ষ হান্নান গ্রুপের লোক হিসেবে পরিচিত এলামদর মিয়ার ছেলে জার্মান মিয়া (৩৫)’র লাশ গ্রামের পাশে হাওরের জমিতে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেয় বলে স্থানীয় সুত্রে জানা গেলেও শাল্লা থানা পুলিশ বলছে ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের কোনো অস্থিত্ব পাওয়া যায়নি।
এব্যাপারে দিরাই সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার ছুরত আলম বলেন, কিছু মানুষ অযতা একটি গুজব ছড়িয়েছে। আরেক জনের লাশ পাওয়ার খবর সঠিক নয়।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কামারগাঁও গ্রামের (চুরের গ্রামের) গিয়াস উদ্দিনের ছেলে তাহের মিয়ার সঙ্গে একই গ্রামের মুন্নাফ মিয়ার ছেলে আব্দুল জলিল মিয়ার জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ বিরোধের জের ধরে গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে দুই পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই জলিল মিয়া মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়।
এ ব্যপারে শাল্লাা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বজলার রহমান জানান, সংঘর্ষস্থল থেকে পুলিশ ১ জনের লাশ উদ্ধার করেছে। পরে হাওরে আরেক জনের মৃতদেহ পড়ে আছে স্থানীয়রা এমন খবর দিলে আমি নিজে  ঘটনাস্থলে গিয়ে কারো লাশ পাইনি। আসলে বিষয়টি গুজব। তিনি আরও বলেন, নিহত আব্দুল জলিলের বিরুদ্ধে ৫টি মমলা রয়েছে ও ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open