শুক্রবার, অক্টোবর ৩০, ২০২০ : ২:৩১ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

ভারতীয় ছাত্রদের এয়ারপোর্ট থেকে ফেরত পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

air-india-getting-return-from-usa-400x246ডেস্ক রিপোর্টঃ গত সপ্তাহে ১৪ জন ভারতীয় ছাত্র উচ্চ শিক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে যাত্রা করেন। কিন্তু সান ফ্রান্সিস্কো বিমানবন্দরে গিয়ে আটকা পড়েন তারা। এফবিআই কর্মকর্তারা তাদেরকে ১৪-১৫ ঘণ্টা আটকে রেখে জিজ্ঞাসাবাদের পর আবার ফেরত পাঠিয়ে দেন ভারতে। ফিরতি ছাত্রদের আরেকটি দল আজ সোমবার দিল্লিতে এসে পৌঁছানোর পর জানিয়েছে, তাদেরকে ফেরত পাঠানোর আগে ৩ দিন কারাগারে আটকে রাখা হয়েছিল।
১৯ জন ছাত্রের তৃতীয় আরেকটি দলকে আটকানো হয় ভারতের হায়দ্রাবাদ বিমানবন্দরেই। যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা থাকা সত্ত্বেও এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমানে করে সান ফ্রান্সিস্কোর উদ্দেশে যাত্রা শুরুর আগেই তাদেরকে আটকে দেয় বিমান কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় এয়ার ইন্ডিয়া থেকে জানানো হয়, ফেরত পাঠানোর মত অপমানকর ঘটনা এড়ানোর জন্যই কাজটি করেছেন তারা। কারণ যুক্তরাষ্ট্র থেকে তাদেরকে বলা হয়েছে, ব্ল্যাক লিস্টেড বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে যে সমস্ত ছাত্র ভারত থেকে আসবে তাদেরকে যেন এড়িয়ে যাওয়া হয়।
এখন প্রশ্ন হচ্ছে, এই তিন দলের ছাত্রদের মধ্যে যোগাযোগটা কোথায়? খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, এরা যুক্তরাষ্ট্রের যে সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে যাচ্ছিলেন সেগুলোকে খোদ মার্কিন সরকারই ব্ল্যাক লিস্টেড করেছেন। অর্থাৎ তাদের কার্যক্রম সরকারের নজরদারিতে রয়েছে।
এ সমস্ত ফেরত ছাত্রদের বেশিরভাগই হায়দ্রাবাদের অধিবাসী। তবে দিল্লি, ছত্তিশগড় এবং অন্যান্য রাজ্যেরও রয়েছেন। তাদের প্রত্যেকের ভিসাই বাতিল করা হয়েছে।
২৩ বছর বয়সী ছাত্র দীপক বলেছেন, ‘আমাদেরকে প্রায় ১৪-১৫ ঘণ্টা যাবত জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। সবাইকে রাখা হয়েছিল একটা কক্ষে এবং কোথাও যাওয়ার অনুমতি ছিল না। এটা ছিল খুবই অপমানকর একটা অভিজ্ঞতা।’

তবে মার্কিন ব্ল্যাক লিস্টেড এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে জানানো হয়েছে কিছুদিন আগের প্যারিসের সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে নিরাপত্তা বাড়ানোর ফলে এই বিপত্তি ঘটেছে।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

চীনে টর্নেডো-শিলাবৃষ্টিতে ৯৮ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের পূর্বাঞ্চলীয় জিয়াংসু প্রদেশে টর্নেডো ও শিলাবৃষ্টির আঘাতে কমপক্ষে ৯৮ জনের মৃত্যু …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open