শুক্রবার, নভেম্বর ২৭, ২০২০ : ১০:৫০ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

আর যেন আত্মঘাতী সংঘাত না হয়…..প্রধানমন্ত্রী

0_95274ডেস্ক রিপোর্ট: আর যাতে আত্মঘাতী সংঘাত না হয় সে ব্যাপারে বিজিবি সদস্যদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।রবিবার সকাল সাড়ে ৯টায় পিলখানার বিজিবি সদর দপ্তরের আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে পিলখানায় বিডিআর বাহিনীতে বিদ্রোহের সূত্রপাত ঘটে। ওই বিদ্রোহে ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তাসহ ৭২ জন প্রাণ হারান।বিদ্রোহের ওই ঘটনাটিকে ইতিহাসের একটি ‘কালো অধ্যায়’ অধ্যায় আখ্যায়িত করে শেখ হাসিনা বলেন, “সে সময় সরকার গঠনের পরপরই বিদ্রোহের একটি রক্তাক্ত অধ্যায় আমাদের মোকাবিলা করতে হয়েছিল।”সবার সহযোগিতায় এই বাহিনীতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, “সতর্ক থাকবেন, ভবিষ্যতে কখনও এমন আত্মঘাতী সংঘাত যেন আর না হয়।শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিডিআর বিদ্রোহের সঙ্গে জড়িত বিডিআর সদস্যদের আইনের আওতায় এনে তাদের বিচার করা হয়েছে। এ বাহিনী এখন সম্পূর্ণ কলঙ্কমুক্ত। সবার আন্তরিক প্রচেষ্টায় বিজিবি গতিশীল ও আধুনিক বাহিনীতে পরিণত হয়েছে। আপনাদের কঠোর পরিশ্রমে এ বাহিনীর সুনাম ও মর্যাদা পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আমি বিশ্বাস করি আপনাদের এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে।’প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিজিবির অপারেশনাল কার্যক্রমকে বেগবান ও গতিশীল করতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আমি বিগত ২৩ জানুয়ারি ২০১১ তারিখে বিজিবির পতাকা উত্তোলন করেছিলাম। এরপর বিজিবির নতুন সাংগঠনিক কাঠামো অনুযায়ী ৪টি রিজিয়ন সদর দপ্তর স্থাপন করে কমান্ড স্তর বিকেন্দ্রীকরণের মাধ্যমে এই বাহিনীকে আরও গতিশীল ও ফলপ্রসূ করা হয়েছে।’তিনি আরও বলেন, ‘সীমান্ত রক্ষাসহ এ বাহিনীর ওপর অর্পিত অন্যান্য দায়িত্ব যেমন আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা, দুর্ঘটনা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও জরুরি পরিস্থিতি মোকাবেলাসহ দেশ গঠনমূলক কাজে ভূমিকা ও পেশাদারিত্ব আজ সর্ব মহলে প্রশংসিত।’”এর আগে সকাল ৯টায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) দিবস ২০১৫ উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পিলখানায় যান প্রধানমন্ত্রী। এ সময় বিজিবি সদস্যদের কুচকাওয়াজ দেখেন ও তাদের সালাম গ্রহণ করেন।প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রের নিরাপত্তায় অবদান রাখায় ৫৬ জন বিজিবি সদস্যের মধ্যে বিজিবি পদক, প্রেসিডেন্ট বিজিবি পদক এবং বিজিবি সেবা পদক প্রদান করবেন। এছাড়া বিজিবির বিভিন্ন ব্যাটালিয়নের সালাম গ্রহণ ও পদক প্রদানের পর বক্তব্য দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত হয়েছেন- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ, বিরোধীদলীয় নেত্রী রওশন এরশাদ।রবিবার পিলখানায় বাহিনীর সদর দপ্তরে বিজিবি দিবসের অনুষ্ঠানে তিনি এই নির্দেশ দেন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বেতন স্কেল ১০ গ্রেডে উন্নীতকরণের দাবি প্রধান শিক্ষকদের

ডেস্ক রিপোর্ট :: দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড (নন-ক্যাডার) প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন উভয় প্রধান শিক্ষকদের প্রবেশ পদে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open