মঙ্গলবার, মার্চ ৯, ২০২১ : ৭:৫৭ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

ভয়-ভীতি উপেক্ষা করে নির্বাচনে অংশ নিন: রিজভী

rijv_94462ডেস্ক রির্পোট: পৌর নির্বাচনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার ও নির্যাতন বেড়ে চলছে এমন অভিযোগ করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমদ। তবে এরপরও সব ভয়ভীতি, উৎপীড়ন উপেক্ষা করে পৌর নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে দেশের মানুষ ও বিএনপি নেতা-কর্মীদের আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির এই নেতা।
তিনি বলেন, ‘জনগণই হচ্ছে সার্বভৌম, সুতরাং নিজেদের অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্যই সব চক্রান্ত জাল ছিন্ন করে, সরকারের দমন পীড়ন অগ্রাহ্য করে নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে হবে। অবৈধ দখলবাজরা মুখে আস্ফালন আর হুমকির তুবড়ি ছোটালেও নৈতিকভাবে তারা দুর্বল। জনগণের সম্মিলিত প্রতিরোধের কাছে তারা কর্পুরের মতো উবে যাবে।’
আজ রবিবার সকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে রিজভী আহমদ এসব কথা বলেন।
রিজভী অভিযোগ করে বলেন, ‘আগামী ৩০ ডিসেম্বর ২৩৫টি পৌরসভা নির্বাচনকে ঘিরে দেশব্যাপী এক জনশূন্য উষর বিরান পরিস্থিতি বিরাজ করানোর জন্য সরকার তার ফ্যাসিবাদী নিষ্ঠুর শাসনযন্ত্রের সব শক্তি প্রয়োগ করছে। বিএনপি নেতা-কর্মীদেরকে ব্যাপকভাবে গণগ্রেপ্তার, নিপীড়ন নির্যাতন, আক্রমণের মাত্রা প্রতিদিনই বৃদ্ধি পাচ্ছে।’
অনেক এলাকায় বিএনপির নেতা-কর্মীরা এলাকায় থাকতে পারছে না বলেও দাবি করেন রিজভী।
রিজভী বলেন, ‘পৌর নির্বাচনে নেতিবাচক জনমত টের পেয়ে জনবিচ্ছিন্ন সরকার মধ্যযুগীয় বর্বরতা নিখুঁতভাবে অনুসরণ করে নির্বাচনকে নিজেদের অনুকূলে দখল করে নেয়ার প্রয়াস চালাচ্ছে। আর এই দখলবাজি নির্বিঘ্ন করতে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে সরকারের আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও দলের ক্যাডাররা প্রাইভেট মার্সেনারির মতোই আচরণ করছে। জোর করে নিজেদের প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করতে প্রয়োজনে তারা মানুষকে বলি দিয়ে রক্তোল্লাসে মেতে উঠতে পারে এমন প্রবণতা এখন দেখা যাচ্ছে।’
ক্ষমতাসীনরা গণতন্ত্রের ভাগ্য নিয়ে তাস এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘ক্ষমতাসীন মন্ত্রী ও নেতাদের বারবার নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন ও অন্যান্য অনিয়মের বিরুদ্ধে বিএনপির পক্ষ থেকে বারবার অভিযোগ উত্থাপন করা হলেও কমিশনের বিএনপির প্রতি অসহিঞ্চুতার রেখাচিত্র ঊর্ধ্বমুখী। বারবার কমিশন স্বচ্ছ ও অবাধ নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি দিলেও জনগণ অশ্বডিম্ব ছাড়া আর কিছুই দেখতে পায়নি।’
ফেনীতে বিএনপির পক্ষে জনমত বেশি থাকা সত্ত্বেও ভয়াল সন্ত্রাসের দৌরাত্মে বিএনপির প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারছেন না বলেও দাবি করেন রিজভী আহমেদ।
তিনি নির্বাচন কমিশনকে সরকারের অঙ্গুলি হেলনে কাজ করছেন না তা প্রমাণ করারও আহ্বান জানান।
দেশের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে পৌরসভায় নির্বাচন কতটা শান্তিপূণ, স্বচ্ছ ও জনগণ কতটুকু নিশ্চিন্তে ভোটকেন্দ্রে যেতে পারবে এটাই এখন দেশবাসীর বড় প্রশ্ন। এখনও বিএনপি নেতা-কর্মীদেরকে রাস্তাঘাট থেকে তুলে নিয়ে গায়েব করা হচ্ছে, ত্রিশালের বিএনপি নেতা এনামূল হক চান মিয়াকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এধরনের পরিকল্পিত আতঙ্কের পরিবেশ বিরাজমান রেখে কৌশলে একতরফা নির্বাচন করতে চায় ক্ষমতাসীন দল।’
নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন ও নিরপেক্ষভাবে কাজ করা আহ্বান জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘অন্যথায় গণতন্ত্রের জন্য বিপদ ডেকে আনবে এবং এটি সাংবিধানিক আগাছা সংস্থায় পরিণত হবে।’

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ট্র্যাফিক নির্দেশনা

আসন্ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিতে আগামী শুক্রবার থেকে রোববার (২১-২৩ অক্টোবর) পর্যন্ত রাজধানীতে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open