বৃহস্পতিবার, মার্চ ৪, ২০২১ : ৩:২৩ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

সেন্টমার্টিনে কোকাকোলার পঞ্চমবারের পরিচ্ছন্নতা অভিযান্

coca-cola coastal cleanup 2015, pic 1_91021সিলেট ভিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কম: আন্তর্জাতিক অংশীদারিত্বের অংশ হিসেবে কোকাকোলা কোম্পানি ও ওশান কনজারভেন্সি সমুদ্র ও জলপথ পরিচ্ছন্ন রাখতে একযোগে কাজ করছে। কারণ এই সমুদ্র ও জলপথ আবর্জনায় ভয়াবহ দূষণের শিকার হচ্ছে। এই আন্তর্জাতিক অংশীদারিত্বের আওতায় বিশ্বে সমুদ্র ও জলপথের টেকসই পরিচ্ছন্নতার পাশাপাশি কিভাবে এবং কেন সমুদ্র দূষিত হচ্ছে এবং কিভাবে এ দূষণের হার কমানো যায় সেই বিষয়েও কাজ করছে এ দুটি প্রতিষ্ঠান।জলপথ এবং সমুদ্র সংরক্ষণ ও পরিচ্ছন্ন রাখতে কোকাকোলা বাংলাদেশ, কেওক্রাডং বাংলাদেশ ও ওশান কনজারভেন্সি ইউ এস একযোগে ২৯তম আন্তর্জাতিক উপকূলবর্তী সৈকত পরিচ্ছন্নকরন দিবস পালনের অংশ হিসেবে বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে এই নভেম্বরে ৫ম বারের মতো একদিনব্যাপী পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পালন করে।আন্তর্জাতিক উপকূল ও সৈকত পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম বিশ্বের অনেক স্বেচ্ছাসেবীকে আকৃষ্ট করে। সমুদ্র-সৈকত, হ্রদ এবং জলপথ থেকে প্রচুর পরিমাণে আবর্জনা সংগ্রহ করে উপকূলবর্তী এলাকা ও সমুদ্র পরিচ্ছন্ন রাখতে হাজার হাজার স্বেচ্ছাসেবী অংশগ্রহণ করে এ কার্যক্রমে। বাংলাদেশে গত চার বছর ধরে এ কার্যক্রমের আওতায় কোকাকোলা বাংলাদেশ ও কেওক্রাডং বাংলাদেশ ২০০০ স্বেচ্ছাসেবীসহ একযোগে সেন্টমার্টিন সমুদ্র সৈকত থেকে প্রায় ৪০০০ কেজি আবর্জনা সংগ্রহ করেছে।এ বছর কোকাকোলা বাংলাদেশ ও কেওক্রাডং বাংলাদেশের এর লক্ষ্য ছিল ৬০০০ পর্যটক ও স্থানীয়দের কাছে ব্যক্তিগতভাবে সমুদ্র পরিচ্ছন্ন রাখার বার্তা পৌঁছে দেওয়া।  বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা স্বেচ্ছাসেবীদের মধ্যে ছিলেন স্থানীয় বাসিন্দাসহ স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ থেকে আব্দুর রব, আব্দুর রহমান, আব্দুল হক, হাফেজা খাতুন, হালিমা খাতুন এবং বি.এন ইসলামিক স্কুল, জিনজিরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ক্রিড প্রাথমিক বিদ্যালয়-এর ২৮৬ জন ছাত্র-ছাত্রী।স্বেচ্ছাসেবকদের মধ্যে আরও ছিলেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কর্মপ্রতিষ্ঠান থেকে আসা ১০৫ জন স্বেচ্ছাসেবী।সমতল অথবা মানুসের বসবাসকারী জায়গা থেকে আসা আবর্জনা পানি ও সামুদ্রিক পরিবেশ দূষণের প্রধান কারণ, তাই আবর্জনা সংগ্রহ ও সংগৃহীত আবর্জনা নির্দিষ্ট স্থানে ফেলার বিষয়ে স্থানীয় অধিবাসী, স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী এবং পর্যটকদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি আচরণগত পরিবর্তন আনাই ছিল এ কার্যক্রমের অন্যতম লক্ষ্য। আশা করা যায়  সেন্টমার্টিনে এ পরিচ্ছন্ন কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী স্বেচ্ছাসেবীরা কিভাবে দূষণ কমানো যায় এই বার্তা তাদের সহকর্মীসহ পরিচিত অন্যান্য সবার কাছে পৌঁছে দেবে যা পরবর্তীতে দূষণ রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।সেন্টমার্টিনে আন্তর্জাতিক উপকূল ও সৈকত পরিচ্ছন্ন কার্যক্রমের আওতায় সংগৃহীত আবর্জনা নিয়ে টেকসই সমাধান খোঁজার প্রকল্পে কোকাকোলা বাংলাদেশ এ বছর একটি পাইলট প্রোগ্রাম চালু করে। এরই অংশ হিসেবে এবছর কোকাকোলা বাংলাদেশ স্থানীয় সরকারি কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় সেন্টমার্টিনে বিভিন্ন জায়গায় ১৫০টি ময়লা ফেলার ঝুড়ি স্থাপন করে।পরিচ্ছন্ন পরিবেশের প্রতি কোকাকোলার প্রত্যয়কে পুনর্ব্যক্ত করে কোকাকোলা বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর, শাদাব খান প্রসঙ্গে বলেন, ‘দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ হিসেবে সেন্টমার্টিন বিপুলসংখ্যক স্থানীয় এবং বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণ করে। এত পর্যটকের ভিড়ে এখানে পরিবেশগত ভারসাম্য অক্ষুন্ন রাখা বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ। তাইতো পর্যটক, স্থানীয় অধিবাসী ও স্কুলগামী ছাত্র-ছাত্রীদেরকে পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে সচেতন করে  তুলতে এবছর আমরা আন্তর্জাতিক উপকূলবর্তী সৈকত পরিচ্ছন্ন দিবসে আবারও ফিরে এসেছি। কোকাকোলা বাংলাদেশ, সহযোগী কেওক্রাডং বাংলাদেশের সাথে পরিচ্ছন কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণের মাধ্যমে একটি সবুজ, পরিচ্ছন্ন এবং টেকসই পরিবেশ তৈরিতে তার বৈশ্বিক প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছে।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেহরিতে মুরগি-আলুর ঝোল

লাইফস্টাইল ডেস্ক : সেহরিতে সবরকমের খাবার মুখে রোচে না। সেহরিতে প্রয়োজন সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর খাবার। …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open