শনিবার, ফেব্রুয়ারী ২৭, ২০২১ : ৭:২৩ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

বিএনপি’র প্রার্থী শূন্য, একাধিক আ.লীগের

8. shoriotpurশরীয়তপুর প্রতিনিধি: নির্বাচনী তফসিল ঘোষনার পূর্বেই শরীয়তপুরের নড়িয়া পৌরসভায় নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করেছে। বিএনপি’র কোন প্রার্থী না থাকলেও আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য আগাম প্রচার প্রচারনা শুরু করেছেন।

নড়িয়ার পৌরসভায় নয়টি ওয়ার্ড এবং তিনটি মহিলা কাউন্সিলর পদে সত্তর জন সম্ভাব্য প্রার্থী মাঠে নেমেছে প্রচার প্রচারনায়। বিগত নির্বাচনে দল সমর্থীত প্রার্থীদেকে ভোটাররা বেশী মূল্যায়ন করায় অত্যাধিক জনপ্রিয় প্রার্থীরা দলীয় ব্যানারে নির্বাচন করতে বেশী আগ্রহী। তাই দলীয় ভাবে মনোনায়ন আদায়ের জন্য প্রার্থীরা কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে ধরণা দিচ্ছেন।

পাশাপাশি সম্ভাব্য প্রার্থীরা শহরের আনাচে-কানাচে, রাস্তার মোড়ে মোড়ে ফেস্টুন স্থাপন এবং দেয়ালে রঙ্গিন পোস্টার লাগিয়ে এলাকাবাসীর কাছে দোয়া চাচ্ছেন। প্রার্থীরা বাজারে বাজারে শুভেচ্ছা বিনিময়, উঠান বৈঠকসহ কর্মীদের নিয়ে এলাকা পরিদর্শন করছেন। বাজারের চায়ের দোকান গুলোতে চলছে ভোটের হিসাব-নিকাশ।

নির্বাচন কমিশন কর্তৃক দেয়া তথ্য মতে, এ বছর ডিসেম্বর মাসে হতে যাচ্ছে পৌর সভার নির্বাচন। এবার নড়িয়া পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে ছয় জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নেয়ার কথা শোনা যাচ্ছে কিন্তু বিএনপি থেকে কোন প্রার্থী প্রচার প্রচারণায় নামেনি।

মেয়র পদে প্রার্থী হিসেবে বর্তমান মেয়র মোঃ হায়দার আলী, শুরেশ্বর মহা বিদ্যালয়ের সাবেক প্রিন্সিপ্যাল এ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ (গেরিলা আজাদ), নড়িয়া উপজেলা সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি সিরাজুল ইসলাম (ভিপি চুন্নু), মোহাম্মদ আলী বেপারী, আব্দুস সালাম মল্লিক ও মোঃ শহিদুল ইসলাম (বাবু রাড়ী)’র নাম ভোটারদের মুখে শোনা যাচ্ছে।

এছাড়া নড়িয়া পৌরসভার নয়টি সাধারণ ও তিনটি মহিলা কাউন্সিলর পদে সত্তর জন সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে মাঠে প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন। এবার দলীয় প্রতীকে স্থানীয় সরকার নির্বাচন ঘোষনায় আওয়ামীলীগ সম্ভাব্য প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয় করার পাশাপাশি দলীয় প্রতীক আদায়ের প্রতিযোগীতায় নেমেছে।

এ ব্যাপারে নড়িয়া পৌরসভার বর্তমান মেয়র মোঃ হায়দার আলী’র সাথে আলাপ কালে তিনি বলেন. পৌরসভার মানুষ আমাকে ভালোবাসে। আমি মেয়র হিসেবে সাধ্য মত চেষ্টা করেছি এলাকার উন্নতি করতে। শেষ বারের মতো আমাকে যদি এলাকার জনগন আরেকবার সুযোগ দেয় তাহলে অসমাপ্ত উন্নয়ন মূলক কাজগুলো শেষ করার চেষ্টা করবো।
মেয়র প্রার্থী এ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ (গেরিলা আজাদ) বলেন, আমি ছাত্র জীবন থেকেই জনগনের প্রয়োজনে রাজনীতি করে এসেছি। দলের র্দূসময়ে আমি নিরলস ভাবে কাজ করেছি। দল যদি আমাকে মনোনায়ন দেয় তাহলে আমি বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হবো।

মেয়র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম (ভিপি চুন্নু) বলেন, দল আমাকে মনোনায়ন দিলে আমি বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয়ী হবো ।
মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ আলী বেপারী বলেন, আমি রাজনীতি করি জনগনের জন্য। জনগন যদি আমাকে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত করে তাহলে নড়িয়া পৌরসভাকে একটি মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলবো।

মেয়র প্রার্থী আব্দুস সালাম মল্লিক বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবৎ জনগনের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। দল আমাকে নমিনেশন দিলে আমি বিপুল ভোটের ব্যবধানে পাস করবো এবং এলাকার মানুষের উন্নয়নে কাজ করবো।
মেয়র প্রার্থী মোঃ শহিদুল ইসলাম (বাবু রাড়ী) বলেন, আমি দীর্ঘদিন যাবৎ জনগনের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। দল যদি আমাকে মনোনায়ন দেয় তাহলে আমি বিজয়ী হবো।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বেতন স্কেল ১০ গ্রেডে উন্নীতকরণের দাবি প্রধান শিক্ষকদের

ডেস্ক রিপোর্ট :: দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড (নন-ক্যাডার) প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন উভয় প্রধান শিক্ষকদের প্রবেশ পদে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open