রবিবার, নভেম্বর ২৯, ২০২০ : ৪:১৭ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

২০ নভেম্বর পর্যন্ত সরকারকে গণজাগরণ মঞ্চের আল্টিমেটাম

8. imranসিলেট ভিউজ ডেস্ক : আগামী ২০ নভেম্বরের মধ্যে প্রকাশক দীপন হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় আনা না হলে লাগাতার কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দিয়েছে শাহবাগের গণজাগরণ মঞ্চ। আজ শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় রাজধানীর শাহবাগে আয়োজিত এক সংহতি সমাবেশ থেকে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার এই আল্টিমেটাম ঘোষণা করেন। সরকারের উদ্দেশ্যে ইমরান এইচ সরকার বলেন, “ভিন্ন মত দমন নয়, জঙ্গিদের দমন করুন। বিনয়ী না হয়ে এদের লাগাম টেনে ধরুন। তা না হলে জনগণ আপনাদের ক্ষমা করবে না।”

তিনি বলেন, ‘আমি সরকারকে মনে করিয়ে দিতে চায়, ২০০১ সালের পর সারাদেশে বোমা হামলা ও জঙ্গি তৎপরতা শুরু হয়েছিলো। সেই সময়কার সরকার নীরব ছিলো। কিন্তু দেশের জনগণ, তরুণ সমাজ পরে তাদের প্রত্যাখ্যান করে। আপনারাও নীরব না থেকে, বিনয়ী না হয়ে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কঠোর হন।’

একের পর এক ব্লগার-প্রকাশক হত্যা হলেও বিচারের অভাবে ও সরকারের উদাসীনতার কারণে জঙ্গিরা উৎসাহিত হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন ইমরান। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমাদের সহকর্মীরা একের পর এক হত্যার শিকার হচ্ছে। আক্রমণ থেমে নেই। জঙ্গিরা নিবিঘ্নে এ কাজ করে গেলেও সরকার নিষ্ক্রিয়।

এসময় ইমরান এইচ সরকার গণজাগরণ মঞ্চের কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এর মধ্যে- আগামী ৯ নভেম্বর সোমবার বিকাল ৪টায় সমাবেশ এবং সন্ধ্যায় শহীদ মিনারের উদ্দেশ্যে আলোর মিছিল, ১৩ নভেম্বর প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ এবং ২০ নভেম্বর গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

মুক্তচিন্তার সংহতি সমাবেশে সভাপতি হিসেবে বক্তব্য রাখেন হত্যার শিকার ব্লগার ও মুক্তমনা লেখক অভিজিৎ রায়ের বাবা অধ্যাপক ড. অজয় রায়। অন্যদের মধ্যে, সাংস্কৃতিক কর্মী ফেরদৌসি প্রিয়ভাষিণী, মানবাধিকার কর্মী খুশি কবীর, উদীচীর সহ-সাধারণ সম্পাদক সংগীতা ইমাম, ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জিলানি শুভ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ট্র্যাফিক নির্দেশনা

আসন্ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিতে আগামী শুক্রবার থেকে রোববার (২১-২৩ অক্টোবর) পর্যন্ত রাজধানীতে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open