সোমবার, অক্টোবর ২৬, ২০২০ : ৯:২৭ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

ইউএনও,উপজেলা চেয়ারম্যান, আ.লীগ সভাপতির বিরেুদ্ধে লিখিত অভিযোগ – শাল্লায় আনন্দ স্কুলের দুর্নীতির প্রতিবাদ করায় একি কান্ড

পি সি দাশ পীযূষ শাল্লা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের শাল্লায় আনন্দ স্কুলের দুর্নীতি অনিয়মসহ যাবতীয় অপকর্ম ডাকতে উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, আওয়ামীলীগ সভাপতি সম্পাদকসহ বেশ কয়েক জনের বিরুদ্ধে আনন্দ স্কুলের দায়িত্বে নিয়োজিত  টিসি সাখাওয়াত হোসেন প্রাথমিক শিক্ষ অধিদপ্তর (রস্ক) ফেইজ ২ প্রকল্প পরিচালক বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন ।  গত ১৫ সেপ্টেম্বর লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে বলে প্রাথমিক শিক্ষ অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায় । সাখাওয়াত হোসেন লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন  উপজেলা চেয়ারম্যান গনেন্দ্র চন্দ্র সরকার, নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম আসিফ বিন ইকরাম, আওয়ামীলীগ সভাপতি মহিম চন্দ্র দাস ও সাধারন সম্পাদক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মাহম্মুদ (আল আমিন) সহ কয়েকজন আনন্দ স্কুল পরিচালনার ক্ষেত্রে বিভিন্ন ভাবে বাঁধা দিচ্ছে ।  আর্থিক বিষয় নিয়েও অনেক কিছু লিখা হয়েছে উক্ত অভিযোগে । এ নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে টিসি সাখাওয়াত হোসেনের সাথে ফোনে কথা হলে প্রাথমিক শিক্ষ অধিদপ্তরে একটি অভিযোগ হয়েছে বলে তিনি স্বীকার করেন । তবে তিনি এ অভিযোগ করেননি বলে জানান ।  অভিযোগের বিষয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আল আমিন চৌধুরীর সাথে কথা হলে তিনি বলেন শাল্লায় আনন্দ স্কুলের যাবতীয় অপকর্মের দোষ ডাকতেই এ অভিযোগ করেছেন সাখাওয়াত হোসেন  । তিনি আরো বলেন টিসি সাখাওয়াত  আনন্দ স্কুলের যাবতীয় কর্মকান্ডে সীমাহিন দুর্নীতির মাধ্যমে যা ইচ্ছা তাই করে সরকারের ভাবমূর্ত্তি ক্ষুন্ন করছেন । আমরা এর প্রতিবাদ করায় তিনি বাচার জন্য আমাদের বিরুদ্ধে এ অভিযোগটি করেছেন । দুর্নীতিবাজ সাখাওয়াতের খুটি জোর হিসেবে প্রাথমিক শিক্ষ অধিদপ্তরে বড় কোন কর্মকর্তা জড়িত রয়েছেন বলে তিনি জানান । অন্যতায় এত দুর্নীতি করে এখনও কি করে ঠিকে আছে দুর্নীতি পরায়ন টিসি । তিনি সাখাওয়াতের যাবতীয় দুর্নীতির সঠিক তদন্ত পুর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কমনা করছেন । এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম আসিফ বিন ইকরাম বলেন  শুরু থেকেই আনন্দ স্কুলের দুর্নীতি অনিয়ম নিয়ে জাতীয় এবং স্থানীয় বিভিন্ন দৈনিক প্রত্রিকায় বার বার সংবাদ প্রকাশ হচ্ছে । এনিয়ে শিক্ষক/ শিক্ষিকাসহ অনেকেই আমার নিকট লিখিত অভিযোগ করেছেন । সেই সুত্রে টিসি সাখাওয়াত হোসেনকে বার বার সাবধান করা হলেও তিনি তার অপকর্ম করেই চলেছে । শুধু তাই নয় এসব দুর্নীতির বিষয়গুলো পত্রিকায় লিখা বন্ধের জন্য তার মনোনীত  শিক্ষক, শিক্ষিকাসহ বেশ কয়েকজন দালালের সমন্ময়ে তিনি (সাখাওয়াত) সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মিছিলসহ তাদের উপর হামলা করিয়েছেন । হামলার শিকার হয়ে উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি পি সি দাশ বাদী হয়ে শাল্লা থানায় একটি সাধারণ ডাইরি  করেছেন । টিসির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য গত মাসের ৩০ তারিখ উপজেলা সমন্বয় সভায় একটি রেজুলেশন করা হয়েছে । এই সব বিষয় নিয়ে টিসিকে দুর্নীতি বন্ধের পরামর্শ দিলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে এই অভিযোগ করেছেন বলে তিনি মনে করেন ।  এঘটনায় এলাকায় নানা গুঞ্জন ও চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে ।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open