শুক্রবার, অক্টোবর ৩০, ২০২০ : ৪:১৭ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

পূজার ছুটি উপলক্ষে গোয়াইনঘাট উপজেলার পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়

সিলেট ভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম : সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার পর্যটন স্পটগুলোতে এবার পুঁজা উপলক্ষে পর্যটকের উপচেপড়া ভিড় ছিল লক্ষনীয়। সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাউৎসবের ছুটিতে ভ্রমন উৎসবে মেতেছেন পর্যটকরা। কেউ কেউ সপরিবারে আবার কেউবা বন্ধু-বান্ধব সাথে নিয়ে ছুটে এসেছেন সিলেটের গোয়াইনঘাটের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে। এর মধ্যে প্রকৃতি কন্যা জাফলং, রাতারগুল সোয়াম ফরেষ্ট, বিছনাকান্দি জিরো পয়েন্ট ও পান্তমাইয়ের ফাটাছড়া ঝর্ণাধারা,হুগাউতি সুয়াম ফরেষ্টে ছিল পর্যটকের পদচারনায় মুখরিত। এই পর্যটন কেন্দ্রগুলো তাদের সৌন্দর্য্যে খুব সহজেই আকৃষ্ট করে আগত পর্যটকদের। এর মধ্যে অন্যতম ও দেশ বিদেশের বিভিন্ন জায়গায় পরিচিতি রয়েছে প্রকৃতিকন্যা জাফলং ও বিছনাকান্দি। প্রকৃতির ঢেলে সাজানো এই সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে দুর্গাপূজাঁ ও ঈদ পরবর্তী ছুটির দিন গুলোতে পর্যটন কেন্দ্র জাফলংয়ে বেড়াতে আসা পর্যটকদের আপ্যায়ন করতে প্রস্তুত ছিল আবাসিক-অনাবাসিক হোটেল রেস্তুরা গুলো। এছাড়া গড়ে উঠেছে পর্যটন কেন্দ্রিক নানা ধরনের ব্যবসা বানিজ্য। এতে রয়েছে দেশী-বিদেশী কাপড়-চোপড়ের ব্যাপক পসরা এবং কসমেটিকসহ নানা রকম উপহার সামগ্রী। সরজমিন পরিদর্শনকালে দেখা গেছে পর্যটন এলাকা জাফলংয়ের প্রবেশ দ্বার মামার বাজাররের মোহাম্মদপুর থেকে শুরু করে বল্লাঘাট পর্যন্ত কয়েক শতাধিক পর্যটকবাহী গাড়ী রয়েছে, রাস্তাঘাট, রেষ্টুরেন্টের সম্মুখ ছাড়াও পাথর রাখার ফিল্ড ও ক্রাসার মেশিন জোন এলাকায় ও প্রচুর পরিমান গাড়ী লক্ষ্য করা যায়।
শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে বেড়াতে আশা একাদিক পর্যটকদের সাথে আলাপ কালে তারা জানায়, পরিবার পরিজনদের নিয়ে গোয়াইনঘাটের বিভিন্ন পর্যটন স্পটে এসে খুব বেশী আনন্দ উপভোগ করছি। তবে ডিজিটাল সরকারের আমলে পর্যটনকেন্দ্র জাফলংয়ের রাস্তার বেহাল দশা দেখে মনে খুবই কষ্ট পেয়েছি। মাননীয় যোগাযোগ মন্ত্রীর ঘোষনার পরও এই রাস্তাটি সংস্কার না করায় পর্যটকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন এখানে আগত পর্যটকসহ স্থানীয়দের চলার উপযোগী করে তুলতে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের সুনজর প্রয়োজন।
এদিকে বিছনাকান্দি জিরো পয়েন্ট এলাকা পরিদর্শনকালে দেখা যায় কয়েক সহস্রাধিক পর্যটকের পদচারনায় মুখরিত রয়েছে নতুন ভাবে পরিচিতি পাওয়া এই পর্যটন কেন্দ্রটিতে। এছাড়াও রাতারগুলের সোয়াম ফরেষ্ট ও পান’মাইয়ের ঝর্ণাধারায় ও পর্যটকেদর সমাগম ছিল লক্ষনীয়।
এছাড়া পর্যটকদরে আগমনে এলাকার পেশা জীবী লোকেরা নতুন ভাবে টাকা আয়েরও সুযোগ হয়েছে। এবার পর্যটকদের আগমনে নতুন সংযোজন ট্রাকটর, এই বাহন বিছনা কান্দি কোয়ারী থেকে পাথর টানা এবং হাল চাষে ব্যবহত হয়। কিন্তু এখন পর্যটকদের বহন করতে কাচা রাস্তা দিয়ে ট্রাক্টর ব্যবহার হচ্ছে । পাথরের চাহদিা কম থাকায় অনেক ট্রাকটার বেকার ছিল ফলে প্রতি মাসে ট্রাক্টররে কিস্তি দিতে মালীকরা হমিছমি খেতে হতো,র্পযটকদরে বহন করে বাড়তি আয়ে ট্রাক্টর মালীকগণ অনেক খুশি।
গোয়াইনঘাট উপজেলার পর্যটন কেন্দ্রে বেড়াতে আসা পর্যটকদের নিরাপত্তার ব্যাপারে জানতে চাইলে অফিসার ইনচার্জ জানান, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসবের ছুটিতে এবার উপজেলার প্রকৃতি কন্যা জাফলং, সোয়াম ফরেষ্ট রতারগুল, পান্তুমাই ফাটা ছড়া ও বিছনাকান্দি পর্যটন কেন্দ্রে অন্য বছরের তুলনায় পর্যটকের সমাগম বেশি হয়েছে। পর্যটন কেন্দ্রে আগত পর্যটকদের নিরাপত্তার জন্য সার্বক্ষনিক পুলিশ টহল অব্যাহত রয়েছে।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেই রাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ

আত্মহত্যা’ করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকতার জাহান জলির সাবেক …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open