শনিবার, অক্টোবর ২৪, ২০২০ : ৬:৩৭ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

প্রচণ্ড শীতে মৃত্যু হুমকিতে ভূমিকম্প বিধ্বস্ত এলাকার শিশুরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত এলাকার গৃহহীন লোকজন প্রচণ্ড শীতে আবারো মৃত্যুর হুমকির মুখে পড়েছে বলে সতর্ক করেছে ত্রাণকর্মীরা। এসব এলাকার মারাত্মক মৃত্যু ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে শিশুরা। গৃহহীনদের জন্য জরুরি ভিত্তিতে কম্বল এবং তাবু সরবরাহ করা প্রয়োজন বলে জানিয়েছে তারা। জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক তহবিল (ইউনিসেফ) এক বিবৃতিতে বলছে, গত দুই দিন ধরে ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত দূরবর্তী পার্বত্য অঞ্চলগুলোতে প্রচণ্ড বৃষ্টি ও তুষারপাতের ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের উত্তরাঞ্চলে ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। এ ঘটনায় উভয় দেশে কমপক্ষে ৩৬০ জন নিহত হয়েছেন। প্রতিবেশী তাজিকিস্তান, ভারত, নেপাল ও বাংলাদেশেও ভূ-কম্পন অনুভূত হয়। নিহতদের মধ্যে শ্রেণিকক্ষ থেকে হুড়োহুড়ি করে বের হতে গিয়ে আফগানিস্তানের অন্তত ১২ স্কুল ছাত্রী রয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরো কয়েক হাজার মানুষ। এছাড়া এ ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন দেশ দুটির কর্মকর্তারা। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, পাকিস্তানে মঙ্গলবার রাতে হাজার হাজার মানুষ আফটার শকের আশঙ্কায় রাস্তায় রাত কাটিয়েছেন। এতে দুর্গত শিশুরা মারাত্মক হুমকির মুখে রয়েছে বলে ইউনিসেফের বিবৃতিতে বলা হয়েছে। ইউনিসেফ বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, সংস্থাটি আফগানিস্তান ও পাকিস্তান সরকারের সঙ্গে কাজ করছে। একইসঙ্গে দুর্গত এলাকাগুলোর হাজার হাজার ক্ষতিগ্রস্ত শিশু ও তাদের পরিবারের জন্য জীবনরক্ষাকারী ত্রাণ সরবরাহের প্রস্তুতি নিচ্ছে। ৪৫ সেকেন্ডের ওই কম্পনে পাকিস্তানে এখন পর্যন্ত ১৬শ` লোক আহত হয়েছে এবং চার হাজার মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছে। এছাড়া আফগানিস্তানে অন্তত ৭ হাজার মানুষ গৃহহীন হয়েছে। এসব মানুষ রাস্তায় তীব্র শীত ও তুষারের মধ্যে রাত কাটাচ্ছে। এদের মধ্যে দেশ দুটির শিশুরা চরম মৃত্যু ঝুঁকির মুখে পড়ছেন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

চীনে টর্নেডো-শিলাবৃষ্টিতে ৯৮ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের পূর্বাঞ্চলীয় জিয়াংসু প্রদেশে টর্নেডো ও শিলাবৃষ্টির আঘাতে কমপক্ষে ৯৮ জনের মৃত্যু …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open