সোমবার, অক্টোবর ২৫, ২০২১ : ৭:৫৬ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

ইবির সেই ছাত্রীর আরও যৌন কেলেঙ্কারী ফাঁস!

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) সেই ছাত্রীর নতুন নতুন কেলেঙ্কারী বেরিয়ে আসছে। তার এসব যৌন কেলেঙ্কারী নিয়ে ক্যাম্পাসে শুরু হয়েছে তোলপাড়। ক্যাম্পাসের অলি গলি, ক্যান্টিন লাইব্রেরিসহ চায়ের আড্ডায় একই আওয়াজ একই সুর। সবার মনে একই প্রশ্ন কীভাবে যৌন কেলেঙ্কারীতে জড়ালেন ওই ছাত্রী। উল্লেখ্য, সম্প্রতি শিক্ষকের আলমিরা থেকে বেরিয়ে আসে ছাত্রী ‘জীবন্ত পুতুল’। সংবাদ প্রকাশের পর এটিই এখন এই ক্যাম্পাসের হট কেক। শিক্ষক শিক্ষার্থীদের আলোচনায় মূল বিষয় এখন পুতুল-হালিমের স্ক্যান্ডাল। বিষয়টি নিয়ে ডিজিটাল পাড়ায় চলছে হইচই। ফেসবুকে কেউ আলমিরা সমাচার লিখছেন। কেউবা আলমিরা নিয়ে ছড়া-গল্প লিখে ফেসবুকে দিয়ে শত শত লাইক কমেন্টের বন্যায় ভাসছেন। সবমিলিয়ে সচেতন শিক্ষক শিক্ষার্থীরা যৌন স্ক্যান্ডালের বিষয়টিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য কলংকজনক অধ্যায় দাবি করে ওই শিক্ষক ও ছাত্রীর দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করছেন। এদিকে বিষয়টি নিয়ে ক্যাম্পাসে হইচই পড়ে গেলেও নিরব রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বৃহস্পতিবার এনিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোন পদক্ষেপ নিয়েছেন বলে জানা যায়নি। শিক্ষক শিক্ষার্থীদের দাবি প্রশাসন হয়তো অন্য যৌন স্কান্ডালের ন্যায় এ বিষয়টিকেও আই ওয়াশ হিসেবে নিয়ে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করবে। এদিকে ঘটনার প্রেক্ষিতে সাবিরা সুলতানা পুতুলের সদ্য ডিভোর্স হওয়া স্বামী রেফুল ইসলামের সাথে কথা হয়। কলকাতার শান্তি নিকেতন থেকে পড়াশুনা শেষ করা রেফুল বলেন,‘পুতুল গত তিন বছর আমার স্ত্রী ছিল। তবে পুতুলের চরিত্রের সমস্যার কারনে তার সাথে আমার সংসার এক দিনের জন্যও সুখের হয়নি।’ রেফুল আরও বলেন, ‘শিক্ষক আব্দুল হালিমের সাথে পুতুলের সম্পর্কের বিষয়ে আমি আগে থেকেই জানতাম। পুতুল আমার কাছে কয়েকবার ধরাও পড়েছে। এছাড়া আমি ঢাকাতে থাকায় ও প্রায়ই হালিমের বাসায় থাকতো এটা আমি জানতাম। হালিমের বাসায় তল্লাশী চালালে পুতুলকে দেওয়া আমার উপহার ও মূল্যবান সামগ্রী পাওয়া যাবে। আমি বিষয়গুলো নিয়ে তাকে অনেক বোঝানোর চেষ্টা করেছি। কিন্তু আমি একজন ব্যর্থ স্বামী। পুতুলের জন্য আমার পরিবারের মান, সম্মান সব ধূলোয় মিশে গেছে। আমি চাই ভবিষ্যতে যেন এই ছলনাময়ী নারী অন্য কারো সুখের ঘরে দূখের আগুন না জ্বালাতে পারে।’ তিনি বলেন,‘পুতুল আমার সাথে বিয়ে করার আগে বুয়েটের ওমর ফারুক নামের এক ছেলের সাথে বিয়ে করে। পরে তার কাছ থেকে ৩ লাখ টাকা নিয়ে সেখান থেকে চলে আসে। এছাড়া পুতুল আমার সাথে বিয়ে হওয়ার আগে এবং পরে কয়েকবার গর্ভপাত করিয়েছে। সেই তথ্য আমার কাছে আছে।’ রেফুল বলেন,‘আমি পুতুলকে নিয়ে একবার ভারতে ডাক্তার দেখাতে যাই। সেখানকার ডাক্তার আমাকে বলেছে পুতুল জীবনে অনেকবার গর্ভপাত করিয়েছে। অথচ ওই সময়ে পুতুলের সাথে আমার ছয় মাস দেখা হয়নি।’ এদিকে পুতুলকে নিয়ে ক্যাম্পাসে তোলপাড় চললেও নিরব রয়েছে পুতুল ও অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুল হালিম। বিষয়টি নিয়ে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগও রহস্যজনক নীরবতা পালন করছে।
-ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেহরিতে মুরগি-আলুর ঝোল

লাইফস্টাইল ডেস্ক : সেহরিতে সবরকমের খাবার মুখে রোচে না। সেহরিতে প্রয়োজন সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর খাবার। …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open