সোমবার, অক্টোবর ২৫, ২০২১ : ৮:৩০ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

রাজন হত্যায় অভিভাবক মহলের উদ্বেগ- ‘নরপশুদের’ ফাঁসি দাবিতে দেশ জুড়ে মানববন্ধন

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম :  রাজনকে হত্যা করে লাশ গুমের ঘটনায় অভিবাবক মহলে চরম উদ্বেগ উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে।  সিলেটের কুমারগাঁওয়ে গত ৮ জুলাই সকালে চোর ‘অপবাদে’ তাকে পিটিয়ে হত্যা  করা হয়। শিশুটিকে হত্যার পর লাশ গুম করার চেষ্টার সময় পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তারও করেছে। নিহত সামিউল আলম রাজন (১৩) সিলেট সদর উপজেলার কান্দিগাঁও ইউনিয়নের বাদেআলী গ্রামের মাইক্রোবাস চালক শেখ আজিজুর রহমানের ছেলে।  চোর ‘অপবাদে’ শিশুকে পিটিয়ে হত্যার ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ার পর শুরু হয়ে তোলপাড়। প্রায় আধাঘণ্টা ধরে নির্যাতনের সেই দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ করেন নির্যাতনকারীদেরই একজন, যা ওই ভিডিওর কথোপকথনে স্পষ্ট। স্থানীয় অনন্তপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত পড়ালেখা করা রাজন সবজি বিক্রি করত। কুমারগাঁও এলাকার একটি গ্যারেজ থেকে ভ্যান চুরির অভিযোগে গত ৮ জুলাই সকালে তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এরপর একটি মাইক্রোবাসে তুলে রাজনের লাশ নিয়ে যাওয়ার সময় মুহিত আলম (২২) নামের একজনকে ধরে পুলিশে দেন স্থানীয়রা।
দেশ জুড়ে মানববন্ধন ‘নরপশুদের’ ফাঁসি দাবি
দেশের বিভিন্ন জায়গায় রাজন হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনকারীরা অবিলম্বে অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়ে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধের আহবান জানিয়েছেন। অবিলম্বে রাজন হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় এনে ফাঁসির দাবিতে মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নগরীর কুমারগাঁওয়ে শিশু কিশোর মেলা সিলেট শাখা মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে। মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা বলেন, বাবার রোজগারির টাকায় যখন সংসার চলে না, ১৩ বছরের বালক সামিউলকে বের হতে হয় সবজি বিক্রি করতে। সেদিনও বের হয়েছিল সবজি নিয়ে। কিন্তু আর বাড়ি ফিরতে পারেনি সে। কোনো অপরাধ না করেও চোর অপবাদে পিটিয়ে হত্যা করল চার ‘নরপিশাচ’। যতক্ষণ পর্যন্ত না রাজন মারা গেছে, ততক্ষণ পর্যন্ত তাকে পিটিয়েছে। বক্তারা আরও বলেন, সামনে ঈদ আসছে। ঈদের আনন্দে সামিউলের দিন কাটানোর কথা, নতুন কাপড়ের জন্য মা-বাবার কাছে বায়না ধরার কথা। কিন্তু সে-ই তো আর নেই। তার মা-বাবার এই কান্না কি পৌঁছাচ্ছে আমাদের কানে? সমাজে একের পর এক অন্যায় ঘটে চলেছে, আর আমরা নির্বিকার। রাজন, সায়ীদসহ অসংখ্য শিশু মারা যাচ্ছে, অপহরণ করে হত্যা করা হচ্ছে। আর কত? সমাজে যখন নীতি-নৈতিকতার ধস নামে, তখন এরকম মূল্যবোধ-মনুষ্যত্বহীন মানুষেরা সমাজে বেড়ে যায়। অনেকেই বলে থাকেন, এসব নীতি-নৈতিকতার বড়-বড় কথা দিয়ে পেট ভরে না। কিন্তু শিশু রাজন হত্যাকান্ডের এই ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়েছে, শুধু খাবারের জন্য বেঁচে থাকাই মানুষের জীবন হতে পারে না। তার দায়িত্ব আরও বেশি। আজ শিশু রাজন হত্যাকান্ড শুধু একজন রাজনের মৃত্যু নয়, বরং গোটা সমাজের বিবেকের মৃত্যু। তাই শিশু সামিউল আলম রাজনের হত্যাকারীদের দ্রুত ফাঁসি নিশ্চিত করতে হবে। শিশু কিশোর মেলা সিলেট শাখার আয়োজনে এ মানববন্ধন-সমাবেশে অংশ নেন এলাকার শ্রমিক-কৃষক-দোকান কর্মচারী-ছাত্র-শিক্ষক-জনপ্রতিনিধিসহ সর্বস্তরের জনগণ। তীব্র ক্ষোভ আর হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি জানান তারা। রাজন হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে মানববন্ধনে সংগঠনের সংগঠক রুবাইয়াৎ আহমেদের সভাপতিত্বে এবং লিপন আহমেদের পরিচালনায় মানববন্ধন চলাকালীন সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, বাসদ (মার্কসবাদী) সিলেট জেলার সদস্য অ্যাডভোকেট হুমায়ুন রশীদ সোয়েব, স্থানীয় অভিভাবক লইলুস আহমেদ, মটর মেকানিকস ইউনিয়ন কুমারগাঁও আঞ্চলিক শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুকিত মুকুল, শিশু কিশোর মেলার সংগঠক ফাহিম আহমেদ চৌধুরী প্রমুখ।
ঝিনাইদহ সংবাদদাতা জানান, সিলেটে মধ্যযুগীয় কায়দায় খুঁটিতে বেঁধে শিশু রাজনকে হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ মানবাধিকার নাট্য পরিষদ ঝিনাইদহ জেলা শাখা এ মানববন্ধনের আয়োজন করে। আজ সকাল ১১ টার দিকে জেলা শহরের পায়রা চত্তরে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে বাংলাদেশ মানবাধিকার নাট্য পরিষদ ঝিনাইদহ জেলা শাখার সভাপতি আব্দুল মজিদ, সাধারণ সম্পাদক নাহিদ নেওয়াজ, সহ-সাধারণ সম্পাদক অমিত শাহরিয়ার বাপ্পিসহ সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ছাড়াও বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেয়।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সিলেট নগরীর কুমারগাঁওয়ে রাজনকে চুরির অভিযোগ এনে খুঁটিতে বেঁধে নির্মমভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে। মানববন্ধনে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়। পাশাপাশি ঝিনাইদহ সদরের অচিন্তানগর গ্রামে ৫ বছরের শিশু মনিরা হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে শাস্তির দাবি জানানো হয়।
খুলনা প্রতিনিধি জানান, শিশু সামিউল আলম রাজনের হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বিচার করে মৃত্যুদ-ে দ-িত করার দাবি জানিয়েছেন খুলনার নাগরিক সমাজ। অ্যাডোলোসেন্ট ক্লাস্টার, খুলনার আয়োজনে মঙ্গলবার নগরীর পিকচারপ্যালেস মোড়ে এক প্রতিবাদী মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। সিলেট নগরীর কুমারগাঁওয়ে মধ্যযুগীয় বর্বরতাকে হার মানিয়ে তাকে হত্যা করা হয়। অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন রূপান্তরের নির্বাহী পরিচালক স্বপন কুমার গুহ, জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির খুলনা বিভাগীয় সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট অলোকানন্দ দাস, মাসাস নির্বাহী পরিচালক অ্যাডভোকেট শামিমা সূলতানা শিলু, মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার খুলনা জেলা সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট মোমিনুল ইসলাম, মানবাধিকার কর্মী ব্লাস্টের সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট অশোক কুমার সাহা, আওয়ামী উলামা লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক ক্বারী শরীফ মিজানুর রহমান, শ্রমিক নেতা এইচ এম শাহাদাত হোসেন, খুলনা পোল্ট্রি ফিস ফিড শিল্প মালিক সমিতির মহাসচিব এস এম সোহরাব হোসেন, উন্নয়নকর্মী অসীম আনন্দ দাস, সিলভি হারুন, শিশু সাংবাদিক সানজিদা ইসলাম প্রমুখ।
মেহেরপুর সংবাদদাতা জানান, সিলেটে শিশু রাজন হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে মেহেরপুরে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে ন্যাশনাল চিল্ড্রেন টাস্কফোর্স (এনসিটিএফ)। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে জেলা প্রশাসক শফিকুল ইসলামের হাতে স্মারকলিপি তুলে দেন সংগঠনটির সংসদীয় প্রতিনিধি হাসান মুহ্মুদ ও মারিয়া নওরিন শশি। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন-অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) হেমায়েত হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মঈনুল হাসান, গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল আমিন, সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক শিহাব শাহরিয়ার, যুগ্ন সম্পাদক আয়েশা আক্তার সহ নেতৃবৃন্দ। এ সময় জেলা প্রশাসক শফিকুল ইসলাস বলেন, রাজন হত্যাকারীদের দ্রুত শাস্তির দাবিতে সামাজিক গণমাধ্যমে সকলকে সোচ্চার হতে হবে। এ ধরনের বর্বরোচিত ঘটনা যাতে আর না ঘটে, সেব্যাপারে সকলকে সজাগ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
২২ গ্রামের আল্টিমেটাম
রাজন হত্যার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে টুকেরবাজার ও কান্দিগাঁও ইউনিয়নের ২২ গ্রামের মানুষজন পুলিশকে আসামি গ্রেফতারে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন। সোমবার সকাল থেকে এ সময় বেঁধে দেয়া হয়।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে কান্দিগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘আসামি যেই হোক, তাকে ধরার জন্য আমরা পুলিশের কাছে দাবি জানিয়েছি।’ জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেন বলেন, ‘আসামি গ্রেফতারে প্রযুক্তির সাহায্য নেয়া হচ্ছে। খুনিরা যাতে পালাতে না পারে সেই ব্যবস্থাও করা হয়েছে। আশা করি, ধৃত আসামিদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে দ্রুত খুনের রহস্য উদ্ঘাটন ও খুনিদের গ্রেফতার করা হবে।’ এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) রহমত উল্লাহ আজকের পত্রিকাকে বলেন, ধৃত দুজনের দেয়া তথ্যমতে ঘাতকদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। আসামিরা যাতে পালাতে না পারে, সে জন্য নজরদারি আরও জোরদার করা হয়েছে।’
প্রসঙ্গত, নির্মম নির্যাতন চালিয়ে রাজনকে হত্যা করার পর ৮ জুলাই লাশ গুম করতে গিয়ে ধরা পড়ে মুহিত। এরপর এই নির্মম খুনের ভিডিওচিত্র প্রকাশ হয়। তারপর থেকেই রাজন হত্যার বর্বরতা দেশবাসীর হৃদয়ে যন্ত্রণা দিচ্ছে। নিহত রাজন কুমারগাঁও বাসস্টেশন সংলগ্ন সিলেট সদর উপজেলার কান্দিগাঁও ইউনিয়নের বাদে আলী গ্রামের মাইক্রোবাস চালক শেখ আজিজুর রহমানের ছেলে।

কামরুল জেদ্দায় আটক
চোর সন্দেহে শিশু শেখ সামিউল আলম রাজনকে (১৩) পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় করা মামলার অন্যতম আসামি কামরুল হাসান সৌদি আরবের জেদ্দায় আটক হয়েছে। ঘটনার একদিন পরই দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও জেদ্দার বাংলাদেশ কনস্যুলেট ও প্রবাসীদের সহযোগিতায় আটক হয় কামরুল। রিয়াদে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গতকাল সোমবার বিকালে ইমিগ্রেশন পুলিশের পরিদর্শক খায়রুল ফজল জানান, গত ১০ জুলাই দুপুর ২টায় কামরুল হাসান নামের ওই ব্যক্তি সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে সৌদি আরবের উদ্দেশ্যে দেশ ছেড়ে যায়। রাজন হত্যা মামলার এজাহারের তিন নম্বর আসামি কামরুল ইসলাম। সে দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে ছিল। কিছুদিনের জন্য দেশে এসেছিল সে। ঘটনার একদিন পর সে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। যদিও প্রশাসন তার দেশত্যাগে রেড অ্যালার্ট জারি করেছিল। জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের নির্দেশ স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর।
ওদিকে এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। গতকাল তিনি এ নির্দেশ দেন। মন্ত্রী বলেন, ‘ঘটনাটি হৃদয়বিদারক ও মর্মস্পর্শী। একজনকে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। আর একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদেরও দ্রুত গ্রেফতার করা হবে। কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।’

মুহিতের স্ত্রী লিপি ও ইসমাইল আটক
আসামি মুহিত আলমের পর তার স্ত্রী ও ইসমাইল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায়  শেখপাড়া এলাকায় মুহিতের বাড়ি থেকে স্ত্রী লিপি বেগমকে আটক করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে। জালালাবাদ থানার ওসি আক্তার হোসেন জানান, ‘এ ঘটনায় আরো তথ্য উদ্ঘাটন করতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য লিপি বেগমকে আটক করা হয়েছে।’
মুহিতের ৫ দিনের রিমান্ড
রাজন হত্যা মামলার ধৃত আসামি মুহিত আলমের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতের বিচারক ফারহানা ইয়াসমিন মামলার শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মুহিত ঘটনায় জড়িতদের নাম প্রকাশ করলেও বিস্তারিত কিছুই বলছে না। মঙ্গলবার সকালে থানা হাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

ব্রিটিশ ভিসা সেন্টার নিয়ে সিলেটে যা বললেন রুশনারা আলী

সংক্ষিপ্ত সফরে সিলেটে অবস্থান করছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ বিষয়ক বাণিজ্যদূত ও ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এমপি রুশনারা …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open