বুধবার, নভেম্বর ২৫, ২০২০ : ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

ঈদবাজারে টুকিটাকি

এই ঈদে পোশাকের সঙ্গে মানানসই গহনা

দেখতে দেখতেই পার হয়ে যাচ্ছে রোজার দিনগুলো। ইতিমধ্যেই অনেকেই হয়তো ঈদের জামা কাপড় কিনে ফেলেছেন। আর যারা এখনো কিনে উঠতে পারেননি তাঁরা প্রস্তুতি নিচ্ছেন কেনার। ঢাকা শহরের বিভিন্ন মার্কেটের দোকানগুলোতে এখন ঈদের ভিড়। পছন্দসই শাড়ি এবং ড্রেসের সঙ্গে যদি মানানসই গহনা পরা না হয় তাহলে ঈদের আনন্দটাই যেন মাটি হয়ে যায়। আর তাই অন্যান্য দোকানগুলোর মত জমে উঠেছে গহনার দোকান গুলোও।

যা চলছে ঈদের বাজারে :-  এইবারের ঈদের গহনা কেনার বেলায় অধিকাংশ ক্রেতা আভিজাত্য, নতুনত্ব ও দামকে মাথায় রেখেই কেনাকাটা করছেন। মোটামুটি হাতের নাগালেই পাওয়া যাচ্ছে নানান রকমের গহনা। বিশেষ করে সোনার গহনার বিকল্প হিসেবে গোল্ড প্লেটেড গহনা গুলো এবারও বেশ বিক্রি হচ্ছে। সেই সঙ্গে চলছে ডায়মন্ড কাট স্টোনের সেট। তবে একেবারে চকচকে সোনালী বা রূপালীর বদলে একটু অ্যান্টিক ধরনের রং গুলো বেশি চলবে এবারের ঈদে। মুক্তোর আবেদনও হারিয়ে যায়নি। আর তাই মুক্তোর লম্বা লহরের মালা গুলোও বেশ বিক্রি হবে এইবারের ঈদের গহনার মার্কেটে।
কোথায় পাওয়া যায় :-
প্রায় সব মার্কেটেই গহনার দোকান আছে। তবে অনেক দোকানেই রুপার গহনার ক্ষেত্রে নানান রকম অসততা করা হয়। আর তাই জেনে শুনে ভালো দোকান থেকে গহনা কেনা ভালো। ফ্যাশনেবল ও ট্র্যাডিশনাল গহনার ক্ষেত্রে বিশ্বস্ত দোকান গুলো হলো আলহামরা শপিংমল , মিলিনিয়াম মার্কেট , সিলেট সিটি সেন্টার, সিলেট প্লাজা , ব্লুওয়াটার ,কাকলী শপিংমল , লতিফ সেন্টার ,শুকরিয়া মার্কেট সহ একাধিক মার্কেটে নানান রকমের স্টোনের ও মেটালিক গহনা পাওয়া যায় । দেশীয় ধাঁচের গহনা এবং একটু জমকালো গহনার জন্য সিটি সেন্টারের নিচতলা উৎকৃষ্টমানের গহনা কেনার জন্য ভালো।
ঈদে লন ও কুর্তি ফ্যাশন :-
ঈদ মানে খুশি। ঈদ মানেই আনন্দ। আর এই আনন্দটা বহুগুণে বাড়িয়ে দেয় ঈদের নতুন জামা। আর তাই ঈদের নতুন জামা পরার এই প্রচলনটাকে ঘিরে মার্কেট গুলোতে পুরো রোজার মাস জুড়েই থাকে জমজমাট ব্যবসা। ফ্যাশন হাউজ গুলো নতুন নতুন ডিজাইনের পোশাক দিয়ে দোকান সাজিয়ে রাখে। সেই সঙ্গে দেশের বাইরের থেকেও কাপড় আমদানি করা হয় প্রচুর পরিমাণে।
লন : হাল সময়ের সবচাইতে জনপ্রিয় কাপড় হলো লন। নারীরা এখন কামিজের জন্য লন ছাড়া আর কিছু যেন ভাবতেই পারছেন না। প্রথমে দিকে পাকিস্থানি লন দিয়ে বাজার ভরে গিয়েছিলো। শেষ পর্যন্ত ইন্ডিয়ান লনও ঈদ মার্কেটে দেখা যাচ্ছে। আবার বর্তমানে দেশেই তৈরি হচ্ছে নানান মানের লন এর থ্রি-পিচ। কোনোটা জর্জেট হাত আর ওড়না, আবার কোনোটা পুরোটাই সুতি কাপড়ে পাওয়া যাচ্ছে লন এর থ্রি-পিচ গুলো। সব মিলিয়ে এবারের ঈদে লনের ফ্যাশনটাই রয়েছে জমজমাট।
আনারকলি/ফ্রক/ সারারা : গতবারের মতই এবারের ঈদেও আনারকলি জামার ফ্যাশন চলছে। বিভিন্ন মার্কেট গুওে দেখা যায় নানা রকমের আনারকলি পোশাক বিক্রি চলছে জমজমাট ভাবে। আগেরবার হাটুর একটু নিচ পর্যন্ত লম্বা পরলেও এবার কিছুটা গাউন স্টাইলে একেবারে পা পর্যন্ত পরার ফ্যাশন চলছে। আনারকলির ফ্যাশনে এবার নতুন সংযোজন হলো কোটি। সেই সঙ্গে সামনে কাটা দেয়া কামিজ ধরনের টপের সাথে নিচে লেহেঙ্গার সারারা চলছে এবারের ঈদ ফ্যাশনে।
এমব্রয়েডারি কামিজ : সাধারণ কাটের কামিজে এবার চলছে একেবারে জমকালো এমব্রয়েডারী করা কামিজ গুলো। কিছুটা কুর্তি ধরনের এই কামিজ গুলোর সামনে ও হাতে থাকছে জমকালো কাজ। লনের উপর এমব্রয়েডারি করেও এই কামিজগুলো তৈরি হয়ে থাকে।
কুর্তি : কুর্তি শুধু সিঙ্গেল পিস কামিজের কদর বেড়েছে এই ঈদের ফ্যাশনে। সামনে এক কাপড় আর পেছনে আরেক কাপড় দিয়ে তৈরি ব্যতিক্রমধর্মী ডিজাইনের কুর্তিও বেছে নিচ্ছেন ফ্যাশনপ্রেমীরা। 
ঈদে ছেলেদের স্টাইলিশ লুকের জন্য
ছেলেরা প্রায়ই বলেন মেয়েদের সাজগোজে অনেক কিছু লাগে। ছেলেদের খুব বেশি কিছু লাগে না। আসলেই কি তাই? ছেলদের কি সাজগোজে আসলেই তেমন কিছু লাগে না? ছেলদের এক্সেসরিজের তালিকা খুঁজতে গেলেও অনেক কিছুই পাওয়া যাবে। এবং এই সকল জিনিস প্রত্যেকটিই ছেলেদের স্টাইলিশ লুকের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। চলুন তবে দেখে নেয়া যাক এবারের ঈদে ছেলেদের এক্সকেসরিজে কী কী রয়েছে।
সানগ্লাস : স্টাইলিশ লুকের জন্য সব চাইতে বেশি প্রয়োজনীয় এক্সেসরিজটি হচ্ছে সানগ্লাস । রোদের হাত থেকে সুরক্ষা দেয়ার পাশাপাশি চেহারায় এক ধরনের স্টাইলিশ ভাব ফুটিয়ে তুলতে সানগ্লাসের জুড়ি নেই। পাঞ্জাবি, শার্ট, টি-শার্ট যেকোনো পোশাকের সাথে মুখের ধরণ বুঝে সানগ্লাস নির্বাচন করে এই ঈদেও হয়ে উঠুন স্টাইলিশ।
হাতঘড়ি : এই ঈদে বরাবরের মতোই ছেলেদের এক্সেসরিজে থাকছে হাতঘড়ি। মাঝে বেশ খানিকটা সময় হাতঘড়ি তেমন দেখা না গেলেও এখন আবার সকলেই ব্যবহার করছেন বিভিন্ন স্টাইলের হাতঘড়ি। ভিন্ন ধর্মী ডিজাইনের হাতঘড়ি বর্তমানে সকলেরই বেশ পছন্দের। ভালো ও নামীদামী ব্যান্ডের সকল ঘড়িই মার্কেটে পাওয়া যায়। এছাড়াও বিভিন্ন মার্কেটে কমদামী ও ব্র্যান্ড ছাড়াও ঘড়ি রয়েছে।
পারফিউম : পারফিউম ছেলদের সৌন্দর্য আরও বাড়িয়ে দেয়। কথাটি বলতে গেলে বলতে হবে সুগন্ধ। যদিও এখনো বর্ষাকাল চলছে কিন্তু বাইরের রোদ দেখে বোঝার উপায় নেই। এই রোদে ও গরমে ঘেমে গেলে গায়ে বিদঘুটে গন্ধ হওয়ার আশংকাই বেশি। তাই ছেলেরা এই ঈদের এক্সেসরিজে যোগ করুন ভালো ব্যান্ডের ও সুন্দর ঘ্রাণের পারফিউম ও বডি স্প্রে।
জুতো : জুতোর প্রতি ছেলেদের অন্য ধরণের আকর্ষণ কাজ করে। পোশাকের সাথে মিলিয়ে মানানসই ধরণের জুতো পড়ার ব্যাপারে ছেলেদের বেশ এগিয়েই থাকতে দেখা যায়। পাঞ্জাবির সাথে স্যান্ডেল বা স্যান্ডেল জুতো, ফর্মাল পোশাকের সাথে ফর্মাল জুতো, এবং ক্যাজুয়াল পোশাকের সাথে স্নিকার্স ধরণের জুতো পড়তে দেখা যায় ছেলেদের। এবারের ঈদেও মার্কেটে উঠেছে ছেলেদের নানান ডিজাইনের জুতো। পোশাকের ধাঁচের সাথে মিলিয়ে বেঁছে নিতে পারেন পছন্দের জুতো।
মানিব্যাগ : তেমন প্রয়োজনীয় মনে না হলেও বর্তমানে চলছে বেশ ভালো ব্র্যান্ডের মানিব্যাগের চল। নানা ডিজাইনের এবং বিভিন্ন জিনিসের তৈরি মানিব্যাগও ঈদের এক্সেসরিজে যোগ করতে পারেন ছেলেরা। ঈদে পোশাকের নানা আয়োজন আজিজে ঈদ-উল-ফিতরের আর বেশিদিন বাকি নেই। তাই বর্তমানে বর্ষার দুর্গতির মধ্যেও জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা। সে প্রমান মিলেছে আজিজ সুপার মার্কেটে গিয়ে। সমস্ত বাংলাদেশে এক নামে পরিচিত আজিজ সুপার মার্কেটের কৃতিত্ব আছে পোশাকে বাঙ্গালিয়ানা ফুটিয়ে তোলার। প্রতিবারের মত এবারো ঈদ উপলক্ষে পোশাকের আপন ঐতিহ্যে সেজেছে সিলেটের সুপার মার্কেট  ও ফ্যাশন হাউসগুলো।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

সেই রাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ

আত্মহত্যা’ করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকতার জাহান জলির সাবেক …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open