রবিবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২০ : ১২:৩১ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

ব্লগার অনন্ত হত্যা মামলা ফটো সাংবাদিক ইদ্রিসকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ চলছে

মুক্তমনা ব্লগার ও লেখক অনন্ত বিজয় দাস হত্যার ক্লু উদঘাটনে ফটো সাংবাদিক ইদ্রিস আলীকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত রয়েছে। সি.আই.ডির (অর্গানাইজড ক্রাইম) চৌকস কর্মকর্তারা গত দু’দিন ধরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তেমন তথ্য পায়নি। অবশ্য ৭ দিনের রিমান্ডে ইদ্রিস আলী বর্তমানে ঢাকার মালিবাগস্থ সিআইডি সদর দপ্তরে রয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ব্লগার ও ব্যাংকার অনন্ত হত্যার জট খুলতে গতকাল বুধবার দিনভর দফায় দফায় ফটো সাংবাদিক ইদ্রিস আলীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন সিআইডির (অর্গানাইজড ক্রাইম) কর্মকর্তারা। তবে গতকাল জিজ্ঞাসাবাদে ইদ্রিসের কাছ থেকে তেমন তথ্য পাওয়া যায়নি। ইদ্রিস হত্যাকান্ডে নিজের সম্পৃক্ততার বিষয়টি অস্বীকার করেই যাচ্ছে। সিআইডির কর্মকর্তারা প্রযুক্তির সহায়তায় নানাভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করে ইদ্রিস আলীর কাছ থেকে হত্যাকান্ড ও ঘাতকদের ব্যাপারে তথ্য আদায় করতে চাইছেন। যে ছবিকে কেন্দ্র করে ইদ্রিসকে গ্রেফতার করা হয় সেই ছবির ব্যাপারেও ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। ঘটনার পরদিন ছবিটি স্থানীয় দৈনিক সবুজ সিলেটের প্রথম পাতায় ছাপা হয়েছিল। সিআইডির বিশেষ সুপার আব্দুল্লাহহেল বাকী বলেছেন, আজ (গতকাল বুধবার) জিজ্ঞাসাবাদ করা হলেও সে তেমন তথ্য দেয়নি। তবে তার কাছ থেকে এ বিষয়ে গরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে বলে আশা করছি। প্রসঙ্গতঃ গত ১২ মে সুবিদবাজার নূরানী দিঘীর দক্ষিণ পাড়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মুক্তমনা ব্লগার অনন্ত বিজয় দাসকে খুন করা হয়। এ ঘটনায় প্রায় ১ মাস পর গত রোববার রাতে স্থানীয় দৈনিক সবুজ সিলেটও জাতীয় দৈনিক সংবাদের ফটো সাংবাদিক ইদ্রিস আলীকে গ্রেফতার করে সিআইডি। গ্রেফতারের পরদিন তাকে আদালতে সোপর্দ করে ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে আদালত ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ঐ দিনই তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে ঢাকার মালিবাগস্থ সিআইডি সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে ইদ্রিস সিআইডির হেফাজতে রিমান্ডে রয়েছেন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

ব্রিটিশ ভিসা সেন্টার নিয়ে সিলেটে যা বললেন রুশনারা আলী

সংক্ষিপ্ত সফরে সিলেটে অবস্থান করছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ বিষয়ক বাণিজ্যদূত ও ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এমপি রুশনারা …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open