বুধবার, মে ১২, ২০২১ : ৭:৩৬ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

মিরবক্সটুলায় পুলিশ প্রহরায় বর-কনের বিদায়, প্রেমিক আটক!

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নগরীতে রোববার দুপুরে ঘটেছে এক ব্যতিক্রমি বিয়ে। পুলিশি প্রহরায় বিয়ে অনুষ্ঠানের ঘটনা নিয়ে নগরীতে চলছে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। মিরবক্সটুলাস্থ রেইবো চাইনিজ রেষ্টুরেন্টে অনুষ্টিত বিয়ের অনুষ্টান থেকে বর ও কনে কে পুলিশ প্রহরায় বিদায় দেয়া হয়। সেই সাথে পুলিশ সেখান থেকে হট্টগোলের অভিযোগে কোতোয়ালি থানাধীন কুয়ারপাড় ৫৩ নং বাসার বাসিন্দা হাজী মনির মিয়ার ছেলে রুমন আহমদ (৩০) কে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। তবে আটকের কথা অস্বীকার করেন কোতোয়ালি থানার ওসি। রোববার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ বিয়ের অনুষ্টান চলকালে রোববার দুপুর ১২টা থেকে ৪টা পর্যন্ত
বিয়ের অনুষ্টান চলাকালিন সময়ে পাহারা দিতে দেখা যায়। এসময় কোতোয়ালি থানার ওসি সোহেল আহাম্মদ নিজে উপস্থিত ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, রোববার বিকেলে সিলেট নগরীর মিরবক্সটুলার রেইনবো চাইনিজ রেস্টুরেন্টে আশা ও রাকিবের (সঠিক পরিচায় গোপন রাখা হয়েছে) বিয়ে চলছিল। তবে শেষ হওয়ার পর বাধঁল বিপত্তি। বিয়ের শেষ মুহুর্তে বিয়ের সেন্টারে হাজির হন কনের প্রেমিক রুমন। এসময় কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে কনে পক্ষের লোকজন রুমনকে দেখে বাহিরে অবস্থান করা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।সিলেট কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল আহম্মদ জানান, আমরা বিয়ের দাওয়াত পেয়ে সেখানে গিয়েছিলাম। এমনকি একটি যুবক হট্টগোল করতে পারে বলে আমাদেরকে জানানো হয়। তবে কাউকে আটক করা হযনি। পুলিশ প্রহরায় বর ও কনে বিদায় দেয়ার কথা তিনি অস্বীকার করেন। এমনকি তিনি নিজেও বিয়েতে খাওয়া দাওয়া করতে পারেননি বলে জানান।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open