শুক্রবার, এপ্রিল ১৬, ২০২১ : ৫:০৮ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

অনন্ত হত্যা মামলায় ৭ দিনের রিমান্ড শেষে ইদ্রিস জেল হাজতে

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম : মুক্তমনা ব্লগার ও লেখক অনন্ত বিজয় দাশ হত্যার ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ফটো সাংবাদিক ইদ্রিস আলীর ৭ দিনের রিমান্ড শেষ হয়েছে। রিমান্ড শেষে সোমবার দুপুরে তাকে মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতে হাজির করা হয়। পরে বিচারক ফারহানা হক তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নিদের্শ দেন।
আদালতের জি.আর বিজয় রায় জানান, ইদ্রিসের ৭দিন রিমান্ড শেষে মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতে তাকে তোলা হয়। দ্বিতীয় আদালতে তোলেন তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি ইন্সপেক্টর আরমান আলী।
তিনি আরো বলেন, ৭ দিনের রিমান্ড শেষে ইদ্রিসের দেয়া তথ্যমতে সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম’র একটি টিম সিলেটে তদন্ত করছে। পরবর্তীতে তদন্তের ব্যাপারে আদালতকে অবগত করা হবে বলে জানান তিনি।
এদিকে, সিআইডি’র অর্গানাইজড ক্রাইমের বিশেষ সুপার আব্দুল্লাহেল বাকি জানান, ইদ্রিসের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্য যাছাই-বাছাই করা হচ্ছে। তার কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্য ক্রস চেকের জন্য সিআইডি’র অর্গানাইজড ক্রাইমের একটি টিম বর্তমানে সিলেটে কাজ করছে।
সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, ইদ্রিস আলীকে ঢাকার সিআইডি কার্যালয়ে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।
গোয়েন্দা সূত্র জানায়, অনন্ত হত্যাকান্ডের সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকার পাশাপাশি বেশ কিছু আলামতের ব্যাপারে ইদ্রিসের কাছে জানতে চাওয়া হয়।
এছাড়া, সিলেটের দৈনিক পত্রিকা সবুজ সিলেটে প্রকাশিত অনন্ত বিজয়ের হত্যার পর তাৎক্ষণিক একটি ছবির ব্যাপারেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ইদ্রিসকে।
ইদ্রিস দাবি করেছেন, ছবিটি ফেসবুক থেকে নেয়া। তবে, তদন্তকারীরা এই তথ্যের কোনো ভিত্তি পায়নি বলে জানান। আর এ কারণেই সন্দেহের আওতায় আনা হয় ইদ্রিসকে।
ওই সূত্র জানায়, ইদ্রিস আলী ‘সবুজ সিলেট’ পত্রিকায় গত ছয় মাস ধরে নিজস্ব ফটোসাংবাদিক হিসেবে কাজ করতেন। ইদ্রিস সিলেট সদর উপজেলার বিমানবন্দর থানার খাদিমপাড়া ইউনিয়নের সাহেব বাজার এলাকার ফতেহগড় গ্রামের মোঃ ইলিয়াছ আলীর ছেলে।
১৪ দিনের মাথায় গত ২৫ মে সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইমের কাছে হত্যা মামলাটির তদন্তভার দেয়া হয়। সোমবার গভীর রাতে সিলেট মহানগর পুলিশের একটি গাড়িতে ইদ্রিসকে ঢাকার সিআইডি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে মঙ্গলবার থেকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত ১২ মে সকালে সিলেট নগরীর সুবিদবাজারের নূরানীদিঘীতে খুন হন মুক্তমান ব্লগার ও গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক অনন্ত বিজয় দাস। এ ঘটনায় গত ৭ জুন রাতে তাকে গ্রেফতার করে সি.আই.ডি।
গত ৭ জুন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক আরমান আলী স্থানীয় ফটোসাংবাদিক ইদ্রিস আলীকে গ্রেফতারের পরদিন আদালতে হাজির করে ১৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। আদালত তার ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open