মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১, ২০২০ : ৪:৩৮ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

অনলাইনে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির আবেদনে যেভাবে ভোগান্তি ও দুর্নীতি

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম : অনলাইন ও এসএমএসের মাধ্যমে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির আবেদন করতে গিয়ে ভোগান্তির শিকার হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। রোল নম্বর, পাসের সাল ও বোর্ডের নাম দিয়ে লগইন করলে ‘আপনি আগেই লগইন করেছেন’ বলে বার্তা দিচ্ছে। এছাড়াও অনেকে ফরম পূরণ করতে পারলেও টেলিটকের মাধ্যমে ভর্তির জন্য নির্দিষ্ট অর্থ প্রদান করতে পারছে না। আবার অনেকেই আইডি-পাসওয়ার্ড পুনরুদ্ধার করতে ব্যর্থ হচ্ছে।

এই সমস্যার ফলে একটি আবেদনে যে কোনো শিক্ষার্থীর পছন্দমতো পাঁচটি কলেজের নাম দেয়ার সুযোগ থাকলেও তা সম্ভব হচ্ছে না। এমনকি গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েও ভালো কলেজে ভর্তির সুযোগ বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কায় পড়েছেন অনেকে।

এদিকে কেবল রোল নম্বর, সেশন ও বোর্ডের নাম দিয়ে সার্ভারে লগইনের সুযোগ থাকায় অনেকে অনৈতিক কাজের আশ্রয় নিচ্ছে বলেও বেশ কিছু অভিযোগ পড়েছে ঢাকা শিক্ষাবোর্ডে।

এ বিষয়ে ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের কম্পিউটার কেন্দ্রের সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্ট মনজুরুল কবীর বলেন, ‘আমরা গতকাল পর্যন্ত ১৩৫টি অভিযোগ পেয়েছি। ইতোমধ্যে এ সমস্যাগুলোর সমাধান করে ফেলেছি। আজো (বুধবার) বেশ কিছু অভিযোগ এসেছে, তবে এর পূর্ণাঙ্গ হিসাব এখনো শেষ করিনি। যেসব অভিযোগ এসেছে সেগুলোর মধ্যে আগেই লগইন করার বিষয়টি সমাধান করে ফেলেছি। আগে রোল নম্বর, পাসের সাল ও শিক্ষাবোর্ডের নাম দিয়ে অ্যাপ্লাই করতে হতো। এখন সেখানে আমরা রেজিস্ট্রেশন নম্বরটাও যুক্ত করেছি। ফলে রোল নম্বর আর রেজিস্ট্রেশন নম্বর না মিললে কিন্তু কেউ অ্যাপ্লাই করতে পারছে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘বেশ কিছু কলেজের বিরুদ্ধেও আমাদের কাছে অভিযোগ এসেছে। এর মধ্যে রাজধানীর দক্ষিণখানের একটি কলেজের বিরুদ্ধে নিজেদের পছন্দমতো শিক্ষার্থীদের অনলাইন রেজিস্ট্রেশনগুলো নিজেরাই করে দিয়েছে বলে অভিযোগ এসেছে। নারায়ণগঞ্জের আরেকটি কলেজে ভর্তিচ্ছুকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে শুধু নিজেদের কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করিয়েছে। আর মোবাইল নম্বর কলেজটির কাছে থাকায় শিক্ষার্থীরাও আবার নিজেরা লগইন করে ঠিক করে নিতে পারছে না। কারণ, মোবাইলে এসএমএস করে ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে দেয়া হয়।’

প্রসঙ্গত, অনলাইনে ভর্তির ওয়েবসাইটে লগইন করার সময় ‘You have already applied’ বার্তা দেখালে স্ব স্ব বোর্ডে কলেজ পরিদর্শক বরাবরে প্রবেশপত্রের কপি এবং মোবাইল নম্বর উল্লেখ করে ১৫ জুন, ২০১৫ তারিখের মধ্যে সমাধান চেয়ে আবেদন করতে বলা হয়েছে।

গত ৬ জুন থেকে ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির জন্য অনলাইন ও এসএমএসের মাধ্যমে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বুধবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করেছে ৪ লাখ ৪০ হাজার শিক্ষার্থী। তারা মোট ১২ লাখ ৬০ হাজারটি আবেদন করেছে। এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন করেছে ১ লাখ ৪৮ হাজার শিক্ষার্থী।

২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণীর ভর্তির জন্য অনলাইন ও খুদেবার্তায় আবেদন গ্রহণ চলবে ১৮ জুন পর্যন্ত। তবে যাদের পুনর্নিরীক্ষণে ফল পরিবর্তন হবে তারা ২১ জুন আবেদন করতে পারবে। অনলাইনের ক্ষেত্রে, http://www.xiclassadmission.gov.bd/ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন করতে হচ্ছে। আর এসএমএসের মাধ্যমে টেলিটকে আবেদন করতে হচ্ছে। অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে একজন ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থী ১৫০ টাকা আবেদন ফি টেলিটকের মাধ্যমে জমা দিয়ে সর্বোচ্চ পাঁচটি কলেজ বা সমমানের প্রতিষ্ঠানের পছন্দক্রম দিতে পারবে।

অন্যদিকে খুদেবার্তার ক্ষেত্রে প্রতি কলেজ বা সমমানের প্রতিষ্ঠানের জন্য ১২০ টাকা আবেদন ফি দিয়ে পছন্দক্রম অনুযায়ী একাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আবেদন করতে পারবে। অনলাইন ও এসএমএসের বাইরে থাকা বাকি কলেজ ও ইনস্টিটিউটটে সাধারণ নিয়মেই ভর্তির আবেদন করার সুযোগ পাবে শিক্ষার্থীরা।

তবে ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণীতে পরীক্ষা দিয়ে রাজধানীর নটরডেম কলেজ, হলিক্রস কলেজ ও সেন্ট জোসেফ কলেজে ভর্তি হতে হবে। এর আগে ৭ জুন এইসএসসিতে ভর্তির ক্ষেত্রে এ তিন কলেজ পরীক্ষা নিয়ে ভর্তি করাতে পারবে মর্মে আদেশ দেয়া হয়। হাইকোর্টের সে আদেশ স্থগিত করতে বুধবার চেম্বারে যায় সরকার পক্ষ, শুনানি করে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালত হাইকোর্টের আদেশই বহাল রাখেন।

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী, ভর্তির জন্য মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করা হবে ২৫ জুন। বিলম্ব ফি ছাড়া ভর্তি ও ফি জমার শেষ সময় ৩০ জুন। আর ক্লাস শুরু হবে ১ জুলাই।
সৌজন্যে:বাংলামেইল২৪ডটকম

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

এবার থেকেই অষ্টম শ্রেণিতে ‘প্রাথমিক সমাপনী’

নিউজ ডেস্ক : পঞ্চম শ্রেণিতে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা এবারই তুলে দেয়া হচ্ছে। ফলে পঞ্চম শ্রেণিতে …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open