মঙ্গলবার, এপ্রিল ২০, ২০২১ : ১:১০ অপরাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদঃ

অবশেষে তুলে ফেলা হচ্ছে নগরীর রিকশা লেন

সিলেটভিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম: যেনো হকার পূণর্বাসন লেন- মেয়র আরিফুল হক কারাবন্দি হওয়ার পর থেকেই এই অবস্থা নগরীতে রিকশার জন্য নির্মিত লেনের। আরিফুল হক চৌধুরী মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর নগরীর যানজট নিরসনে বন্দরবাজার এলাকার সড়কে নির্মান করা হয়ে ছিলো আলাদা রিকশা লেন। আরিফুল হক মেয়র পদ থেকে বহিস্কৃত হওয়ার পর এই রিকশা লেন পরিণত হয় হকার পূণর্বাসন লেনে। দূর্ভোগ লাঘবের জন্য তৈরি করা লেন অব্যবস্থাপনায় নগরীর দূর্ভোগের কারন হয়ে দাঁড়ায়। অবশেষে এই রিকশা লেন তুলে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার সিলেট চেম্বার অব কমার্সে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় সিলেট মহানগর পুলিশের কমিশনার কামরুল আহসান জানান, নগরীতে রিকসার লেন তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু এখন লেনের শিকল পর্যন্ত বেদখল হয়ে গেছে। বিভাগীয় আইন শৃংখলা কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে-রমজানের আগেই এই শিকল তুলে ফেলবে সিটি কর্পোরেশন। 
এমন এক সময়ে রিকশা লেন তুলে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো যখন সিটি করপোরেশনেরই উদ্যোগে নগরীর কোর্ট পয়েন্টে নির্মিত হচ্ছে ফুটওভার ব্রিজ। বিপুল ব্যয়ে নির্মিত এই ব্রিজটির কতটুু সদ্বব্যবহার হবে এ নিয়েও প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। প্রশ্ন রয়েছে সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা দক্ষতা নিয়েও।
২০১৪ সালে রিকশা লেন নির্মানের পর এই লেনের ভেতর দিয়ে যাতে রিকশা চলাচল করে এই জন্য সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বেসরকারী একটি প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তারক্ষী নিয়োগ দেওয়া হয়েছিলো।  এছাড়া ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতেও চালানো হয়েছিলো অভিযান। কিন্তু সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী চৌধুরী কিবরিয়া হত্যা মামলার আসামী হয়ে আত্মগোপনে চলে যাওয়ার পর থেকেই পাল্টে যায় দৃশ্য। রিকশার এলোমেলো চলাচল রুখতে নিয়োগ দেওয়া নিরাপত্তারক্ষীদের সরিয়ে নেয় সিটি করপোরেশন। বন্ধ হয়ে যায় ফুটপাত দখলমুক্ত রাখার অভিযানও।  ফলে এখন দখল হয়ে পড়েছে নগরীর সকল ফুটপাত। ফুটপাত ছাড়িয়ে রিকশালেনগুলো হয়ে উঠেছে ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ীদের আস্তানা। 
বতর্মানে ওই লেন দিয়ে রিকশা চলাচল তো দূরের কথা, সাধারণ মানুষ চলাচলেরও সুযোগ নেই। রিকশা লেনগুলো এখন হিতে বিপরীত হয়ে দেখা দিয়েছে। রিকশা লেন বেদখল হয়ে পড়ায় দিনদিন যানজট আরো বাড়ছে।
জানা গেছে, ২০১৪ সালের শুরুর দিকে ক্রিকেট বিশ্বকাপকে সামনে রেখে প্রথমে নগরীর সুরমা পয়েন্ট থেকে সিটি পয়েন্ট পর্যন্ত পরীক্ষামূলকভাবে রিকশা লেন চালু করা হয়েছিল। দুই সপ্তাহ পর সেই লেন স্থায়ী রূপ পায়। এরপর পোস্ট অফিস থেকে সিটি পয়েন্ট ও সুরমা মার্কেট পয়েন্ট পর্যন্ত এবং সিটি পয়েন্ট থেকে কোর্ট পয়েন্ট পর্যন্ত রিকশা লেন সম্প্রসারিত করা হয়।
বৃহস্পতিবার চেম্বারের মতবিনিময় সভায় পুলিশ কমিশনার আরো বলেন, ফুটপাত বেদখল হওয়ার কারণেই নগরীতে যানজট হচ্ছে। তিনি বলেন, বল প্রয়োগ করে যেকোন সময় ফুটপাতের অবৈধ লোকদের পুলিশ তুলে দিতে পারবে। কিন্তু কেবল তুলে দিলেই হবে না-এদের পুনর্বাসনের কথাও আসে। হলিডে মার্কেটের কথা আসে। রাজনৈতিক বিষয়ও এতে রয়েছে। তবে এটি সত্য যে, অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে অবশ্যই ফুটপাত দখলমুক্ত করতে হবে। সবাইকে সাথে নিয়েই ফুটপাত দখলমুক্ত করা হবে।
পুলিশ কমিশনার কামরুল আহসান বলেন, রমজান মাসে সকাল ৬টায় থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সিলেট নগরীতে কোন ট্রাক চলাচল করতে পারবে না। যদি কেউ এটি অমান্য করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে।
রমজান ব্যতিত অন্য সময় রাত ৮টার মধ্যেই দোকানপাট বন্ধ করতে হবে। এ বিষয়ে সরকারের নির্দেশনা মানতে হবে। তিনি বলেন, টমটম একেবারেই নিষিদ্ধ। এটি চালানো যাবে না। এটি আটকের পর ফেরত দেয়া হবে না। পুলিশের কোন সদস্যের বিরুদ্ধে প্রমানসহ অভিযোগ দেয়া হলে অবশ্যই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এক্ষেত্রে পুলিশের অভিযুক্ত সদস্যকে ছাড় দেয়া হবে না।
যানজট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কারো কথা শুনতে চাই না। আমরা সিলেটকে যানজট মুক্ত করতে চাই। এজন্যে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন। যানজট নিরসনে আমাদের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

এছাড়াও নিম্নের সংবাদগুলো দেখতে পারেন...

বিশ্বনাথে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের বিশ্বনাথে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উপজেলার দৌলতপুর ইউপির ১নং ওয়ার্ডে মেম্বার …

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Open